শিল্পওবাণিজ্যমন্ত্রক

স্টার্ট-আপ বাস্তুতন্ত্রকে সহায়তা দিতে ২০২১ কর্মসূচির রাজ্যভিত্তিক ফলাফল ঘোষণা

Posted On: 04 JUL 2022 4:52PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ৪ জুলাই, ২০২২

নতুন দিল্লির অশোক হোটেলে বাণিজ্য ও শিল্প এবং গ্রাহক বিষয়ক ও বস্ত্রমন্ত্রী শ্রী পীযূষ গোয়েল স্টার্ট-আপ বাস্তুতন্ত্রকে সাহায্য করতে রাজ্যভিত্তিক ফলাফলের তৃতীয় পর্বের ঘোষণা করেছেন। তালিকা প্রকাশের জন্য রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে পাঁচটি ভাগে ভাগ করা হয়েছিল। সেরা ফলাফল, শীর্ষ স্থানাধিকারি, নেতা, ভবিষ্যতের নেতা এবং উন্নয়নশীল স্টার্ট-আপ বাস্তুতন্ত্র।

গুজরাট ও কর্ণাটক রাজ্যস্তরে সেরা ফলাফলের পুরস্কার পেয়েছে। মেঘালয় পেয়েছে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ও উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলির মধ্যে শীর্ষস্থান লাভের শিরোপা কেরল, মহারাষ্ট্র, ওড়িশা ও তেলেঙ্গানা পেয়েছে সেরা ফলাফলের পুরস্কার। অন্যদিকে, কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ও উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলির বিভাগে জম্মু ও কাশ্মীর সেরার শিরোপা পেয়েছে। আসাম, পাঞ্জাব, তামিলনাড়ু, উত্তরাখণ্ড ও উত্তরপ্রদেশ পেয়েছে রাজ্যগুলির মধ্যে নেতা বিভাগের শিরোপা। অন্যদিকে, কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ও উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলির বিভাগে আন্দামান-নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ, অরুণাচল প্রদেশ ও গোয়া পুরস্কার জিতেছে। আগামীদিনের নেতা বিভাগে ছত্তিশগড়, দিল্লি, মধ্যপ্রদেশ রাজ্যস্তরে পুরস্কার এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ও উত্তর-পূর্ব রাজ্যের বিভাগে চণ্ডীগড়, দাদরা ও নগর হাভেলি, দমন ও দিউ, মণিপুর, নাগাল্যান্ড, পুদুচেরী ও ত্রিপুরা পুরস্কৃত হয়েছে। উন্নয়নশীল স্টার্ট-আপ বাস্তুতন্ত্র বিভাগে রাজ্যস্তরের পুরস্কার পেয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ ও বিহার এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ও উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলির বিভাগে শিরোপা অর্জন করেছে মিজোরাম ও লাদাখ।

পুরস্কার ঘোষণা করে শ্রী পীযূষ গোয়েল বলেন, ডিজিটাল বাণিজ্যের জন্য ওপেন নেটওয়ার্ক হাজার হাজার স্টার্ট-আপ-এর সুযোগ করে দিয়েছে। ভারতের ইউপিআই যে বিপুল সাফল্য পেয়েছে তা দেশের অর্থ প্রদান ব্যবস্থাকে মজবুত করেছে। আগামী পাঁচ বছরে ই-কমার্স ক্ষেত্রে বিরাট সাফল্য আসবে। আমাদের আরও অনেক স্টার্ট-আপ ও ইউনিকর্ন কাজ করতে শুরু করবে। ১০০ বিলিয়ন ডলার বা ১ ট্রিলিয়ন ডলারের তিনটি কোম্পানির তুলনায় ১ বিলিয়ন ডলারের হাজার কোম্পানি পাওয়া যাবে।

শ্রী গোয়েল একে অপরের থেকে শেখার জন্য রাজ্যগুলিকে তাদের প্রতিবেশীর সঙ্গে সমন্বয় তৈরির পরামর্শ দেন। তিনি বিভিন্ন বিভাগকে আরও বেশি স্টার্ট-আপ ও সরকারি ই-মার্কেট প্লেস (জেম) কার্যকর করার কথাও বলেন।

জেলাস্তরে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের স্টার্ট-আপ সম্বন্ধীয় প্রকল্পগুলির জন্য বিশেষ দৃষ্টি দেওয়া দরকার বলে মন্তব্য করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে ডিপিআইআইটি-র সচিব শ্রী অনুরাগ জৈন এবং জাতীয় স্টার্ট-আপ উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য শ্রী মনোজ কোহলিও ভাষণ দেন।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের পয়লা অক্টোবর থেকে ২০২১ সালের ৩১ জুলাই পর্যন্ত কাজের ফলাফলের ভিত্তিতেই এই রাজ্যস্তরে স্টার্ট-আপ তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে।

PG/PM/DM



(Release ID: 1839387) Visitor Counter : 212