স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সমবায় মন্ত্রী শ্রী অমিত শাহ আজ গুজরাটের আমেদাবাদে ৬৩২ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত একটি অলিম্পিক স্তরের ক্রীড়া কমপ্লেক্সের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছেন

Posted On: 29 MAY 2022 9:04PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লী,  ২৯  মে, ২০২২

 

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সমবায় মন্ত্রী শ্রী অমিত শাহ আজ গুজরাটের আমেদাবাদে ৬৩২ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত একটি অলিম্পিক স্তরের ক্রীড়া কমপ্লেক্সের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছেন। অনুষ্ঠানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শ্রী অনুরাগ সিং ঠাকুর, প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামানিক, গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী শ্রী ভুপেন্দ্র প্যাটেল সহ বেশ কয়েকজন বিশিষ্ট ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন। 

অনুষ্ঠানে শ্রী শাহ জানান, এই এলাকার যুবাদের একটি বড় স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে। এই এলাকায় একাধিক বিদ্যালয় আছে যেখানে খেলার মাঠ নেই। তাহলে শিশুরা খেলবে কোথায়। শরীরচর্চা করার মাঠ নেই এমন বিদ্যালয়ের ছেলেমেয়েরা এখন এই ক্রীড়া কমপ্লেক্সে খেলতে আসতে পারবে। তিনি বলেন, আজ থেকে ৩০ মাস পরে এই ক্রীড়া কমপ্লেক্সের উদ্বোধন করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীকে আমন্ত্রণ জানানো হবে। যাতে এই কাজটি দ্রুত শেষ হয় তারজন্য পর্যবেক্ষণ চালানো হবে বলেও আশ্বাস দেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। গুজরাটের সন্তান শ্রী নরেন্দ্র মোদীর প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেন, তাঁর সহযোগিতা ছাড়া এই কমপ্লেক্স কখনোই তৈরি হতনা। 

শ্রী শাহ জানান, প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী ক্রীড়া ক্ষেত্রে আমেদাবাদকে একটা আন্তর্জাতিক সুপরিচিতি দিতে একাধিক উদ্যোগ নিয়েছে। শ্রী নরেন্দ্র মোদী যখন গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন তখন তিনি আবাদ (এবিএডি) ডেয়ারিতে বিভিন্ন ধরণের খেলাধুলার জন্য একটি ইন্ডোর স্পোর্টস কমপ্লেক্স চালু করেছিলেন। এছাড়াও আমেদাবাদে বিশ্বের বৃহত্তম ক্রিকেট স্টেডিয়ামটির নামকরণ করা হয়েছে নরেন্দ্র মোদী ক্রিকেট স্টেডিয়াম। প্রধানমন্ত্রী শ্রী মোদী সর্দার প্যাটেল স্পোর্টস কমপ্লেক্স তৈরির জন্য একটি বৃহৎ জায়গা দিয়েছেন। এই স্পোর্টস কমপ্লেক্স তৈরির সঙ্গে সঙ্গে আমেদাবাদ এমন এক শহরে পরিণত হবে যেখানে অলিম্পিকের প্রস্তুতি নেওয়া সম্ভব।

এই কমপ্লেক্সের নকশা প্রস্তুত করতে ক্রীড়া মন্ত্রক যে সাহায্য করেছে তার জন্য কেন্দ্রীয় ক্রীড়া ও যুব বিষয়ক মন্ত্রী শ্রী অনুরাগ সিং ঠাকুর এবং শ্রী নিশীথ প্রামাণিকের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী। আগামী ১০ বছরে গুজরাট দেশের খেলাধুলায় প্রথম সারিতে উঠে আসবে বলেও আশাপ্রকাশ করেন তিনি। এক্ষেত্রে গুজরাটের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী যথেষ্ট উদ্যোগ নিয়েছে বলেও তিনি জানান। গত তিন বছরে গান্ধীনগর এলাকায় ৮ হাজার ৬১৩ কোটি টাকার মূল্যের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। তিনি বলেন, ২০২৪ সালের মধ্যে গান্ধীনগর দেশের সবচেয়ে উন্নত নির্বাচনী ক্ষেত্রের তালিকায় স্থান পাবে। তিনি বলেন, এই ক্রীড়া কমপ্লেক্সের কাজ সব বিদ্যালয়কে স্পোর্টস কমপ্লেক্সের সঙ্গে যুক্ত করার কাজ চালাতে হবে কারণ খেলাধুলা কেবলমাত্র শরীরকে শক্তিশালী করে তোলেনা, মানসিক বিকাশ সাধনে সাহায্য করে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, সমাজ এবং জীবনের সৃষ্টি এমন যে ধীরে ধীরে শিশু মাটি থেকে দূরে সরে গেছে। যদি না সে পড়ে যায়, আঘাত না পায়, না হারে তাহলে সে পরাজয় হজম করতে পারবেনা এবং জেতার স্পৃহাও জন্মাবেনা। জেতার পর না হারলে জেতার অহঙ্কার জন্মায়। তেমনই খেলাধুলার অভাবে মানুষের স্বভাবেও নানান ধরণের বিকৃতির জন্ম নিয়েছে। 

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্ব ভারত সব ক্ষেত্রেই এগিয়ে চলেছে বলে জানান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী। তিনি বলেন, ভারত আজ খেলাধুলার পদক তালিকায় শূন্য নম্বরে নেই। দেশের ক্রীড়াবীদরা স্বর্ণ, রৌপ্য ও ব্রোঞ্জ পদক নিয়ে এসেছেন। আগামী ১০ বছরের মধ্যে খেলাধুলা ক্ষেত্রে দেশের খেলোয়াড়দের ক্রমতালিকা যাতে ১-৫’এর মধ্যে তারজন্য প্রয়াস চালানো হচ্ছে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে এই দেশ ৮ বছরে অনেক বেশি নিরাপদ, সমৃদ্ধশালী হয়েছে। যেকোন সমস্যার সমাধান হোক বা টিকা তৈরি, অর্থনীতির জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া হোক বা পরিবেশ নিয়ে আলোচনা, এমনকি রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ পরিস্থিতিতেও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সিদ্ধান্ত নিয়ে আলোচনা শেষ হয়নি। সারা বিশ্বে ভারতের গুরুত্ব বাড়ানোর জন্য নরেন্দ্র মোদী কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। 

 

CG/SS/NS



(Release ID: 1829688) Visitor Counter : 180


Read this release in: English , Urdu , Gujarati