কর্মী, জন-অভিযোগএবংপেনশনমন্ত্রক
azadi ka amrit mahotsav

উন্নয়নে আগ্রহী জেলার ধারণা বাস্তবসম্মত মানের ওপর ভিত্তি করে : সমগ্র কর্মসূচিটি বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে তৈরি করা হয়েছে

Posted On: 07 MAY 2022 10:07AM by PIB Kolkata
নতুন দিল্লি,  ৭ মে,  ২০২২
 
কেন্দ্রীয় কর্মচারী, গণ অভিযোগ ও পেনশন বিষয়ক মন্ত্রী ডাঃ জিতেন্দ্র সিং বলেছেন, উন্নয়নে আগ্রহী জেলার ধারণা বাস্তবসম্মত মানের ওপর ভিত্তি করে এবং সমগ্র কর্মসূচিটি নির্দিষ্ট কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সমীকরণের মূল্যায়নের ওপর বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে তৈরি করা হয়েছে। সেই অনুসারে চিহ্নিত ১১২টি উন্নয়নে আগ্রহী জেলায় ব্যাপক পরিবর্তন নিয়ে আসার ওপর গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। 
 
ডাঃ সিং আরও বলেছেন, চার বছর আগে প্রধানমন্ত্রী এই কর্মসূচির সূচনা করেছিলেন, যার উদ্দেশ্য ছিল স্থানীয় ভাবে দীর্ঘমেয়াদী ভিত্তিতে উন্নয়নের উদ্দেশ্যগুলি অর্জন করে দেশকে অগ্রগতির পথে চালিত করা। ডাঃ সিং গত সন্ধ্যায় বিহারের সীতামারি জেলায় এই কর্মসূচির অগ্রগতির পর্যালোচনা করে একথা বলেন। উল্লেখ করা যেতে পারে, বিহারে যে ১৩টি জেলাকে উন্নয়নে আগ্রহী জেলা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে, তার মধ্যে সীতামারি একটি। 
 
ডাঃ সিং বলেন, উন্নয়নে আগ্রহী জেলা কর্মসূচিটি সহযোগিতা ও প্রতিযোগিতা মূলক যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হয়ে উঠেছে। এই কর্মসূচিতে তুলনায় পিছিয়েপড়া জেলাগুলিকে এগিয়ে থাকা সেরা জেলাগুলির সমতুল হয়ে উঠতে উৎসাহিত করা হচ্ছে। তিনি জানান, এই কর্মসূচির সুবিন্যস্ত দিকগুলির মধ্যে রয়েছে কেন্দ্রীয় ও রাজ্যস্তরীয় প্রকল্পগুলির মধ্যে সমন্বয়, কেন্দ্রীয় ও রাজ্য স্তরের আধিকারিক ও জেলাশাসকদের মধ্যে সহযোগিতা এবং মাসিক ডেল্টা-ক্রমতালিকা অনুযায়ী জেলাগুলির মধ্যে প্রতিযোগিতামূলক মনোভাব গড়ে তোলা। 
 
উন্নয়নে আগ্রহী জেলা কর্মসূচির আওতায় সীতামারিতে যে কর্মকান্ড চলছে, তাতে সন্তোষ প্রকাশ করে ডাঃ সিং বলেন, এই কর্মসূচি বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক সূচকে লক্ষ্যণীয় পরিবর্তন এনেছে। এরফলে, এই জেলাটি শিক্ষামূলক কর্মসূচি রূপায়নের নিরিখে অন্যতম অগ্রণী জেলা হয়ে উঠেছে। গত চার বছরে এই জেলায় প্রাথমিক বিদ্যালগুলিতে পড়ুয়া – শিক্ষক অনুপাত ১৬ শতাংশ থেকে বেড়ে ৩৫ শতাংশ হয়েছে। 
 
আর্থিক অন্তর্ভুক্তিকরণের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ অগ্রাধিকার দেওয়ার কথা উল্লেখ করে ডাঃ সিং এই জেলায় আর্থিক অন্তর্ভুক্তিকরণের পরিধি বাড়াতে আধিকারিকদের আরও সক্রিয় পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ দেন। তিনি বলেন, এই জেলাটিকে প্রশাসনিক কাজকর্ম সম্পর্কিত আরও নিখুঁত তথ্য প্রদান ব্যবস্থায় অগ্রগতি করতে হবে। ডাঃ সিং বলেন, এই কর্মসূচির মূল চালিকাশক্তি হল সংশ্লিষ্ট রাজ্য। তাই প্রতিটি জেলার সম্ভাবনা বিবেচনা করে উন্নয়নের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রগুলিকে দ্রুত চিহ্নিত করা হয় এবং প্রতি মাসে জেলাটির উন্নয়নের নিরিখে ক্রমতালিকায় অগ্রগতি মূল্যায়ন করা হয়। এই ক্রমতালিকা ৪৯টি প্রধান বিষয়ের ওপর ভিত্তি করে তৈরী করা হয়েছে। এই সূচকের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট জেলার অগ্রগতি বিশ্লেষণ করা দেখা হয়। পাঁচটি আর্থসামাজিক বিষয়কেও এই সূচকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে – স্বাস্থ্য ও পুষ্টি, শিক্ষা, কৃষি ও জলসম্পদ, আর্থিক অন্তর্ভুক্তি ও দক্ষতা উন্নয়ন এবং পরিকাঠামো। উন্নয়নে আগ্রহী জেলাগুলির ডেল্টা-ক্রমতালিকা এবং সমস্ত জেলার কাজকর্মের অগ্রগতির খতিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স অফ চেঞ্জ ড্যাশবোর্ডে দেওয়া হয়। 
 
 
CG/BD/AS/


(Release ID: 1823564) Visitor Counter : 56