প্রতিরক্ষামন্ত্রক
azadi ka amrit mahotsav

আজাদি কা অমৃত মহোৎসবের অঙ্গ হিসেবে রাজপথে প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে ভারতের সামরিক শক্তি এবং সাংস্কৃতিক বৈচিত্র তুলে ধরা হবে

Posted On: 25 JAN 2022 1:09PM by PIB Kolkata
নতুন দিল্লি,  ২৫ জানুয়ারি, ২০২২
 
রাষ্ট্রপতি শ্রী রামনাথ কোবিন্দ আগামীকাল ৭৩তম প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপনে সমগ্র দেশবাসীর হয়ে নেতৃত্ব দেবেন। এবারের প্রজাতন্ত্র দিবস আরও একটি কারণে বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ হয়ে উঠেছে এবং সেটি হল ভারতের স্বাধীনতার ৭৫তম বার্ষিকী আজাদি কা অমৃত মহোৎসব হিসেবে সারা দেশে উদযাপিত হচ্ছে। সেই উপলক্ষে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক আগামীকাল থেকে ২৯ জানুয়ারি পর্যন্ত - রাজপথে কুচকাওয়াজ থেকে শুরু করে বিজয়চকে বিটিং দ্য রিট্রিট অনুষ্ঠান পর্যন্ত একগুচ্ছ কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এবার সিদ্ধান্ত হয়েছে যে, প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠান প্রতি বছর ২৩ থেকে ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত এক সপ্তাহ ধরে উদযাপন করা হবে। মহান স্বাধীনতা সংগ্রামী নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বসুর জন্মবার্ষিকী ২৩ জানুয়ারী থেকে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়ে ৩০ জানুয়ারি শহীদ দিবসের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটবে। 
 
আগেই উল্লেখ করা হয়েছে যে, এবার সপ্তাহ ব্যাপী প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে একাধিক কর্মসূচির পরিকল্পনা করা হয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে জাতীয় সমর শিক্ষার্থী বাহিনীর 'শহীদো কে সাথ সাথ নমন' কর্মসূচি, ভারতীয় বিমান বাহিনীর ৭৫টি যুদ্ধ বিমান / হেলিকপ্টারের ফ্লাই-পাশ, সারা দেশজুড়ে বিশিষ্ট ৪৮০ জন নৃত্য শিল্পীর নৃত্যানুষ্ঠান প্রভৃতি। 
 
কোভিড-১৯ পরিস্থিতির বিষয়টি বিবেচনায় রেখে এবারের রাজপথে কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে আসন সংখ্যা সীমিত রাখা হয়েছে। তবে, অনলাইনে এই অনুষ্ঠান সরাসরি প্রত্যক্ষ করার জন্য মাইগভ পোর্টালে নাম নথিভুক্ত করতে উৎসাহ দেওয়া হচ্ছে। অনলাইনে দর্শক-শ্রোতারা তাদের পছন্দের মার্চিং কনটিনজেন্ট এবং ট্যাবলোগুলিকে ভোট দিতে পারবেন। 
 
এবারের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানের আরও একটি বিশেষত্ব হল, সমাজের সেই সব শ্রেণীর মানুষ যারা সচরাচর এই ধরণের কুচকাওয়াজ সামনে থেকে প্রত্যক্ষ করার সুযোগ পান না, তাদের কর্মসূচিতে সামিল করা। এই প্রেক্ষিতে অটোরিক্সা চালক, ভবন নির্মাণকর্মী, সাফাই কর্মচারী এবং অগ্রভাগে থাকা করোনা যোদ্ধাদের প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে উপস্থিত করার পাশাপাশি বিটিং দ্য রিট্রিট অনুষ্ঠান প্রত্যক্ষ করার সুযোগ করে দেওয়া হচ্ছে। 
 
প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী জাতীয় যুদ্ধ স্মারক পরিদর্শনের মধ্য দিয়ে প্রজাতন্ত্র দিবসে কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানের সূচনা হবে। এরপর তিনি বীর শহীদদের স্মৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। সেখান থেকে প্রধানমন্ত্রী ও অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিরা কুচকাওয়াজ প্রত্যক্ষ করার জন্য রাজপথে অভিবাদন মঞ্চে উপস্থিত হবেন। ঐতিহ্য মেনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে এবং ২১টি গান স্যালুটের মধ্যদিয়ে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশিত হবে। এরপর, রাষ্ট্রপতি শ্রী রামনাথ কোবিন্দ কুচকাওয়াজে অভিবাদন গ্রহণ করবেন। কুচকাওয়াজের নেতৃত্বে থাকবেন দ্বিতীয় প্রজন্মের সেনা আধিকারিক, অতিবিশিষ্ট সেবা পদক প্রাপ্ত লেঃ জেনারেল বিজয় কুমার মিশ্র। কুচকাওয়াজের সেকেন্ড ইন কম্যান্ড হিসেবে থাকবেন দিল্লি এরিয়ার চিফ অফ স্টাফ মেজর জেনারেল অলোক কাকের। 
 
 

CG/BD/AS/



(Release ID: 1792679) Visitor Counter : 118