শিল্পওবাণিজ্যমন্ত্রক

ভারত বিশ্বের বৃহত্তম শসা ও ক্ষীরা রপ্তানিকারক দেশ হিসেবে উঠে এসেছে

ভারত ২০২১ সালের এপ্রিল থেকে অক্টোবর পর্যন্ত ১১৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের ক্ষীরা রপ্তানি করেছে, যেখানে, ২০২০-২১ সালে এই রপ্তানি ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ছাড়িয়েছে

Posted On: 23 JAN 2022 9:45AM by PIB Kolkata
নতুন দিল্লি, ২৩ জানুয়ারি, ২০২২
 
ভারত বিশ্বের বৃহত্তম শসা ও ক্ষীরা রপ্তানি কারক দেশ হিসেবে উঠে এসেছে। ভারত ২০২০-২১ আর্থিক বছরে এপ্রিল থেকে অক্টোবরের মধ্যে ১১৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যে ১,২৩,৮৪৬ মেট্রিক টন শসা এবং ক্ষীরা রপ্তানি করেছে।
 
ভারত গত আর্থিক বছরে কৃষি প্রক্রিয়াজাত পণ্য রপ্তানিতে ২০০ মার্কিন মিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে। পিকলিং শসা যা বিশ্বব্যাপী করনিচন নামে পরিচিত।
 
ভারত থেকে ২০২০-২১ আর্থিক বছরের শসা এবং  ক্ষীরা রপ্তানির পরিমাণ ছিল ২,২৩,৫১৫ মেট্রিক টন। মার্কিন ডলারে এর মূল্য ২২৩ মিলিয়ন ডলার।
 
ভারত সরকারের শিল্প ও বাণিজ্য মন্ত্রকের নির্দেশ অনুযায়ী বাণিজ্য বিভাগ কৃষি ও প্রক্রিয়াজাত খাদ্য পণ্য রপ্তানি উন্নয়ন সংস্থা বা অ্যাপেডা'র মাধ্যমে পরিকাঠামো উন্নয়ন এবং বিশ্ব বাজারে পণ্যের প্রচার ও প্রক্রিয়াকরণের ক্ষেত্রে একাধিক উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।
 
ক্ষীরা দু'ভাবে রপ্তানি করা হয়। একটি শসা হিসাবে এবং অন্যটি ক্ষীরা হিসেবে। এগুলিকে ভিনিগার বা অ্যাসিটিক অ্যাসিডের মাধ্যমে সংরক্ষণ করে রাখা হয়।
 
ভারতে প্রথম রপ্তানির জন্য ক্ষীরা উৎপাদন শুরু হয় ১৯৯০ সালে কর্ণাটক রাজ্যে। পরবর্তীকালে তামিলনাড়ু, অন্ধ্রপ্রদেশ এবং তেলেঙ্গানা থেকেও এর রপ্তানি শুরু হয়। সারা বিশ্বে যে পরিমান ক্ষীরার প্রয়োজন হয় তার ১৫ শতাংশ ভারত থেকে উৎপাদিত হয়ে রপ্তানি হয়।
 
বর্তমানে শসা বা ক্ষীরা ভারত থেকে বিশ্বের ২০টি দেশে রপ্তানি করা হয়। এর মধ্যে রয়েছে উত্তর আমেরিকা ও ইউরোপ ভুক্ত দেশ গুলি। এছাড়া রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জার্মান, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান, বেলজিয়াম, রাশিয়া, চীন, শ্রীলংকা এবং ইজরায়েল।
 
ভারতে মোট ৬৫ হাজার একর জমিতে শসা ও ক্ষীরার চাষ হয়। এই চাষের সাথে কমবেশি ৯০ হাজার ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষক জড়িত রয়েছেন।
 
ভারত থেকে শসা এবং ক্ষীরা ৫১ টি সংস্থার মাধ্যমে বিদেশে রপ্তানি করা হয়।
 
 
CG/ SB


(Release ID: 1791991) Visitor Counter : 488