তথ্যওসম্প্রচারমন্ত্রক
azadi ka amrit mahotsav

৫২তম ভারত আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হলিউডের চলচ্চিত্র নির্মাতা মার্টিন স্করসিকে সত্যজিৎ রায় লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট পুরস্কার দিয়ে সম্মানিত

সত্যজিৎ রায়ের সিনেমা আমাদের কাছে এক নতুন জগতের দ্বার উন্মুক্ত করে দিয়েছিল : মার্টিন স্করসি

আন্তর্জাতিক সিনেমার প্রবাদপ্রতীম ব্যক্তিদের ইফি-র পক্ষ থেকে স্বীকৃতি

Posted On: 20 NOV 2021 7:04PM by PIB Kolkata
মুম্বাই, ২০ নভেম্বর, ২০২১
 
চলচ্চিত্র শিল্পে অসামান্য কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ ৫২তম ভারত আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের আজ সূচনা অনুষ্ঠানে হলিউডের বিশিষ্ট চলচ্চিত্র নির্মাতা মার্টিন স্করসিকে সত্যজিৎ রায় লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট পুরস্কারে সম্মানিত করা হয়েছে। উল্লেখ করা যেতে পারে, গোয়ায় আজ থেকে ভারত আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব (ইফি)-এর সূচনা হয়েছে।
 
আন্তর্জাতিক সিনেমার আইকন মার্টিন স্করসি এক ভিডিও বার্তার মাধ্যমে তাঁর কৃতজ্ঞতাজ্ঞাপন করে বলেন, সর্বকালের সেরা এবং আমার অনুপ্রেরণা, মহান চলচ্চিত্র নির্মাতা সত্যজিৎ রায়ের নামাঙ্কিত এই পুরস্কার গ্রহণ করে আমি অত্যন্ত সম্মানিত। আমি সত্যজিৎ রায়ের শিল্পকর্ম যখনই তাঁর ছবি দেখেছি, তখনই অনুসরণ করার চেষ্টা করেছি। প্রকৃতপক্ষে সত্যজিৎ রায়ের ছবি আমার কাছে এক নতুন অভিজ্ঞতা। তাঁর ‘পথের পাঁচালি’ দেখার পর আমার কাছে এক নতুন বিশ্বের দরজা খুলে গিয়েছিল। সিনেমাতে সত্যজিৎ রায়ের শিল্পনৈপূণ্য, চরিত্রগুলির সংবেদনশীলতা এবং তাঁর ছবির সঙ্গীত আমাকে সর্বদাই অনুপ্রাণিত করেছে। আমি আমার মেয়েকে নিয়ে তাঁর ছবি ‘পথের পাঁচালি’ দেখেছি এবং এই ছবি আমার ওপর এতটাই প্রভাব ফেলেছিল যে আমি বিশ্বের অন্যান্য সংস্কৃতি সম্পর্কে জানতে আরও বেশি উদ্বুদ্ধ হয়ে উঠি।
 
পুরস্কার গ্রহণ করে মহান এই চলচ্চিত্র নির্মাতা তাঁকে এই সম্মান দেওয়ার জন্য ভারতীয় চলচ্চিত্র শিল্পের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। একবিংশ শতাব্দীর অন্যতম সেরা চলচ্চিত্র নির্মাতা হিসেবে মার্টিন স্করসিকে গণ্য করা হয়ে থাকে। চলচ্চিত্র নির্মাণে স্বতন্ত্র কৌশল তাঁকে একটি প্রতিষ্ঠানের মর্যাদা দিয়েছে। তাঁর সেরা সিনেমাগুলির মধ্যে রয়েছে – ‘গুডফেলাস’, ‘ট্যাক্সি ড্রাইভার’, ‘রেজিং বুল’, ‘দ্য ডিপার্টেড’, ‘শাটার আইল্যান্ড’, ‘দ্য ওয়ার্ল্ড অফ দ্য ওয়াল স্ট্রিট’ প্রভৃতি।
 
নিউ ইয়র্ক সিটির ক্যুইন্স-এ জন্ম মার্টিন স্কোরসি ছোট দৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্র নির্দেশনার মধ্য দিয়ে সিনেমার জগতে প্রবেশ করেন। তাঁর নির্দেশিত কয়েকটি স্বল্পদৈর্ঘ্যের ছবির মধ্যে রয়েছে – ‘দ্য বিগ শেভ অ্যান্ড ইটস নট জাস্ট ইউ’, ‘মুরে’ প্রভৃতি।
 
হলিউডের বিখ্যাত এই চলচ্চিত্র নির্দেশক মিঃ স্কোরসি, ১৯৯০ সালে দ্য ফিল্ম ফাউন্ডেশন, ২০০৭-এ ওয়ার্ল্ড সিনেমা ফাউন্ডেশন এবং ২০১৭-তে আফ্রিকান ফিল্ম হেরিটেজ প্রোজেক্ট নামে বেশ কয়েকটি অলাভজনক সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেছেন। তিনি তাঁর শিল্পনৈপূণ্যের জন্য গোল্ডেন গ্লোব, বাফটা, অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ড এবং অন্যান্য আন্তর্জাতিক পুরস্কার পেয়েছেন। সুদীর্ঘ ৫০ বছরের চলচ্চিত্র জীবনে মিঃ স্কোরসি একাধিক চলচ্চিত্র, ডকুমেন্টারি, স্বল্পদৈর্ঘ্যের ছবি, টেলিভিশনে অনুষ্ঠান ও মিউজিক ভিডিও নির্দেশনা ও প্রযোজনা করেছেন।
 
হাঙ্গেরির চলচ্চিত্র নির্মাতা ইস্তেভান জাবোকেও আজ ৫২তম ইফি-র সূচনা অনুষ্ঠানে সত্যজিৎ রায় লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট পুরস্কার দিয়ে সম্মানিত করা হয়।
 
বিশিষ্ট ভারতীয় চলচ্চিত্রকার সত্যজিৎ রায়কে আধুনিক সিনেমার অগ্রণী ব্যক্তিত্ব হিসেবে গণ্য করা হয়ে থাকে। সারা বিশ্বজুড়ে তিনি চলচ্চিত্র অনুরাগীদের কাছে অত্যন্ত শ্রদ্ধেয় ব্যক্তিত্ব। ‘অপুর ট্রিলজি’, ‘মিউজিক রুম’ - এরকম একাধিক অসাধারণ চলচ্চিত্রের জন্য তিনি আজও ভারতীয় সিনেমা জগতে নিজের স্বতন্ত্র পরিচিতি অক্ষুণ্ণ রেখেছেন। তাঁর এই ছবিগুলি আজও অতুলনীয়।
 
এ বছর প্রবাদপ্রতীম চলচ্চিত্রকার শ্রী সত্যজিৎ রায়ের জন্মের শতবার্ষিকী উদযাপনের অঙ্গ হিসেবে ইফি-র লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট পুরস্কারের নামকরণ ‘সত্যজিৎ রায় লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট পুরস্কার’ করা হয়েছে।  
 
 
CG/BD/DM/


(Release ID: 1773610) Visitor Counter : 82