অর্থমন্ত্রক
azadi ka amrit mahotsav

জাতীয় রাজধানী অঞ্চল, হরিয়ানা ও পশ্চিমবঙ্গে আয়কর দপ্তরের তল্লাশি অভিযানে বিপুল টাকার আমদানি সংক্রান্ত অবৈধ চালানের হদিশ

Posted On: 16 OCT 2021 11:31AM by PIB Kolkata

নতুন দিল্লি, ১৬ অক্টোবর, ২০২১

 

আয়কর দপ্তর গত ১০ তারিখ জাতীয় রাজধানী অঞ্চল, হরিয়ানা ও পশ্চিমবঙ্গে ছড়িয়ে থাকা একটি ব্যবসায়িক গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে তল্লাশি অভিযান চালায়। এই ব্যবসায়িক গোষ্ঠীটি ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন ও আনুষঙ্গিক যন্ত্রাংশ আমদানি ও ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত। তল্লাশি অভিযানের সময় আয়কর দপ্তর একাধিক অবৈধ নথিপত্র, ডায়রি ও ডিজিটাল প্রমাণ পেয়েছে। বাজেয়াপ্ত হওয়া এই সমস্ত নথিপত্র থেকে জানা গেছে, সংস্থাটি অবৈধ চালান জারি এবং আমদানিকৃত সামগ্রীর ভুয়ো হিসেব দেওয়ার সঙ্গে যুক্ত ছিল। এছাড়াও সংস্থাটির বিরুদ্ধে অবৈধ লেনদেন, সম্পত্তি সংগ্রহে বেহিসেবি লগ্নি, ভুয়ো ঋণ গ্রহণ প্রভৃতির সঙ্গে যুক্ত থাকার প্রমাণ মিলেছে। এই ব্যবসায়ী গোষ্ঠীটি ভুয়ো সংস্থার নামে অবৈধ চালান অথবা আমদানিকৃত সামগ্রীর প্রকৃত হিসেব গোপন করে অবৈধ চালান জারি করতো। সীমাশুল্ক ফাঁকি দেওয়ার জন্যই এই ধরণের চালান তৈরী করা হত বলে জানা গেছে। সারা দেশে হিসেব বহির্ভূত নগদ লেনদেনের মাধ্যমে আমদানিকৃত সামগ্রী বন্টন করা হত। কলকাতা বন্দরে একটি কন্টেইনারে তল্লাশির সময় অবৈধ কারবারের হদিশ মেলে। কন্টেইনারে তল্লাশির সময় এইচডিএমআই কেবল আমদানি খাতে ৩ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে বলে বিলে দেখানো হয়। অবশ্য, বিষয়টি খতিয়ে দেখে আয়কর দপ্তর জানতে পারে যে, প্রকৃত মূল্য এর অনেক বেশি। এমনকি, ভুয়ো ওই বিল দেখিয়ে ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন গোপনে আমদানি করা হয়, যার প্রকৃত মূল্য ৬৪ কোটি টাকার বেশি। 

আয়কর দপ্তরের তল্লাশি অভিযানের সময় জানা গেছে, অবৈধ চালানের মাধ্যমে বিদেশি সংস্থাগুলিকে হাওলা মারফৎ মাশুল মেটানো হয়েছে। এই ব্যবসায়ী গোষ্ঠীর যাবতীয় লেনদেন হাওলা মারফৎ হত বলে প্রাথমিক প্রমাণ মিলেছে। তল্লাশির সময় নগদ ২ কোটি ৭৫ লক্ষ টাকা বাজেয়াপ্ত হয়েছে। সমগ্র ঘটনার তদন্ত চলছে। 

 

CG/BD/AS/



(Release ID: 1764408) Visitor Counter : 79


Read this release in: English , Urdu , Hindi , Tamil , Telugu