স্বাস্থ্যওপরিবারকল্যাণমন্ত্রক

চলতি কোভিড পরিস্থিতি মোকাবিলায় পাঁচটি পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যের নানা ধরনের প্রয়োজনীয়তা এবং তাদের প্রস্তুতি খতিয়ে দেখল কেন্দ্র
৫ টি অতি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়কে চিহ্নিত করা হল

Posted On: 05 MAY 2021 8:50PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ৫ মে, ২০২১

 

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য সচিব শ্রী রাজেশ ভূষণ এবং নীতি আয়োগের সদস্য (স্বাস্থ্য)ডঃ বিনোদ কে পালের সভাপতিত্বে আজ পূর্বাঞ্চলীয় পাঁচটি রাজ্য আসামপশ্চিমবঙ্গওড়িশাবিহার এবং ঝাড়খণ্ডের সাথে একটি উচ্চ-স্তরের বৈঠক আয়োজিত হয়েছে। এই পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলি কোভিড-১৯ অতিমারী সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ এবং পরিচালনার জন্য যে ব্যবস্থা নিয়েছে তা পর্যালোচনা করা হয়। নানা ধরণের তথ্য থেকে দেখা যাচ্ছে যে রোগটি পূর্বীয় রাজ্যগুলির দিকে এগোচ্ছে এবং সংক্রামিতের সংখ্যা বাড়ার পাশাপাশি মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে ।

সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলির স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান সচিব, জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনের ডিরেক্টর এবং রাজ্যের নজরদারি আধিকারিকের সঙ্গে আই.সি.এম.আর.-এর মহানির্দেশক ডঃ বলরাম ভার্গবডি.জি.এইচ.এস. ডঃ (অধ্যাপক) সুনীল কুমার, স্বাস্থ্য বিভাগের অতিরিক্ত সচিব শ্রীমতী আরতি আহুজা এবং এন.সি.ডি.সি.-র নির্দেশক ডঃ সুজিত কে সিং উপস্থিত ছিলেন। 

এই রাজ্যগুলিতে দৈনিক কোভিড আক্রান্তের ঊর্ধ্বমুখী এবং সংক্রমিতদের মৃত্যুর হার ক্রমশ বাড়ছে। কোভিড মহামারীর ফলে এই রাজ্যগুলি যে সঙ্কটের সম্মুখীনতার জন্য পাঁচটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় বৈঠকে আলোচিত হয়েছে। স্বাস্থ্য পরিষেবায় মানবসম্পদের প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্ব দিয়ে রাজ্যগুলিকে আয়ুষ্মান ভারত স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কমিউনিটি হেলথ অফিসারদের কাজে লাগানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এছাড়াওএএনএম সহ অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীরা যাতে তাঁদের বকেয়া অর্থ নির্দিষ্ট সময়ে পানসেটি নিশ্চিত করার ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনের অর্থ এখানে ব্যয় করা যেতে পারে। এর পাশাপাশিকেন্দ্র সিদ্ধান্ত নিয়েছে এমবিবিএস পাঠক্রমের অন্তিম বর্ষের ছাত্রছাত্রীদেরযে সমস্ত ছাত্রছাত্রীরা এখনও নিট পরীক্ষা দেননি, নার্সিং পাঠরত চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্রছাত্রী এবং ইন্টার্নদের কোভিড সংক্রমিত রোগীদের চিকিৎসার কাজে লাগানো হবে। 

আজ থেকে দেশে যেসব রাজ্যে সংক্রমণের হার ২০ শতাংশের ওপরে সেইসব রাজ্যের নাম স্বাস্থ্য মন্ত্রকের ওয়েবসাইটে দেখাতে হবে। এই তালিকা নির্দিষ্ট সময় অন্তর আপডেট করতে হবে। রাজ্যগুলিকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে তারা যাতে নমুনা পরীক্ষাসংক্রমিতদের হোম আইসোলেশনে রাখা এবং যে কোনও বড় জমায়েত রোধ কাজ করে। এই সময়ে কঠোর বিধি-নিষেধ আরোপ করে হাসপাতালের পরিকাঠামো বাড়ানো, অস্থায়ী হাসপাতাল তৈরি এবং হাসপাতালের সঙ্গে যুক্ত হস্টেলগুলিকে কাজে লাগাতে হবে। 

রাজ্যগুলিকে গত বছর পরামর্শ দেওয়া হয়েছিলচিকিৎসার কাজে হাসপাতালের রোগীদের কতটা অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে সে বিষয়ে বিস্তারিতভাবে জানাতে হবে। কিন্তুস্বাস্থ্য যেহেতু রাজ্যের এক্তিয়ারভুক্ততাই বিভিন্ন রোগীর জন্য অক্সিজেনের চাহিদা বুঝতে রাজ্যগুলিকে  অডিট করার কথা বলা হয়েছিল, যদিও  বেশিরভাগ রাজ্যই এখনও তা করে ওঠেনি। এ বিষয়ে অক্সিজেন অডিট সব রাজ্যগুলিকে করতে হবে। মাত্র কয়েকটি রাজ্য ছাড়া কেউই এ কাজে এগিয়ে আসেনি। প্রত্যেক জেলায় একটি করে পি.এস.এ. প্ল্যান্ট গড়ে তোলার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রক, ডি.আর.ডি.ও. এবং সি.এস.আই.আর. রাজ্যগুলিকে এই প্ল্যান্ট বসানোর কাজে সাহায্য করবে। 

টিকার ক্ষেত্রে মুক্ত নীতি গ্রহণ করার ফলে টিকাকরণের তৃতীয় পর্বে রাজ্য সরকার এবং বেসরকারি হাসপাতালগুলি টিকা উৎপাদকদের কাছ থেকে সরাসরি টিকা কিনতে পারবে। 

নীতি আয়োগের সদস্য ডঃ ভি কে পাল অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা যথাযথ পরিচালনের কাজজেলাগুলিতে নমুনা পরীক্ষা বৃদ্ধি সহ টেলি-মেডিসিন পরিষেবায় বেসরকারী ক্ষেত্রকে কাজে লাগানোর পরামর্শ দিয়েছেন। আই.সি.এম.আর.-এর মহানির্দেশক জানান, আর.টি.পি.সি.আর.-এর মাধ্যমে কোভিড সংক্রমিত হওয়ার পরামর্শদান নির্ধারিত সময় পরে সরিয়ে দেওয়া হবে। তিনি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের পরামর্শ মনে রাখার জন্য সকলের কাছে আবেদন জানান। যেসব জেলায় ১০ শতাংশের বেশি মানুষ সংক্রমিত  হয়েছেন সেখানে কনটেনমেন্ট এলাকা বেশী করে রাখতে হবে ।  এন.সি.ডি.সি.-র নির্দেশক সংক্রমিতদের দ্রুত শনাক্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণের ওপর গুরুত্ব দিয়েছেন। এ ছাড়াও কোভিড সংক্রান্ত আচরণবিধি যথাযথ মেনে চলার ওপরে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। 

 

SDG/CB/DM/



(Release ID: 1716388) Visitor Counter : 44