আইনওবিচারমন্ত্রক

সুপ্রিম কোর্টের ই-কমিটি তৃতীয় পর্যায়ে ই-আদালত কর্মসূচি রূপায়ণের জন্য খসড়া পরিকল্পনা সম্পর্কে মতামত ও পরামর্শ আহ্বান করেছে

Posted On: 04 APR 2021 2:11PM by PIB Kolkata
নতুন দিল্লি, ৪ এপ্রিল, ২০২১

 

মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের উচ্চাকাঙ্খি ই-আদালত কর্মসূচির তৃতীয় পর্যায়ে রূপায়ণের জন্য ই-কমিটি খসড়া পরিকল্পনা প্রনয়ণ করেছে। উল্লেখ করা যেতে পারে কেন্দ্রীয় ন্যায় বিচার দপ্তর মিশন মোড পদ্ধতিতে ই-আদালত কর্মসূচি রূপায়ণ করছে। 
মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের ই-কমিটি গতকাল আদালত কর্মসূচির তৃতীয় পর্যায়ের জন্য খসড়া কর্মপরিকল্পনা গতকাল প্রকাশ করেছে। ই-কমিটির এক পেশ বিজ্ঞপ্তিতে আজ বলা হয়েছে, খসড়া এই কর্মপরিকল্পনাটি ই-ওয়েবসাইটে (https://ecommitteesci.gov.in/document/draft-vision-document-for-e-courts-project-phase-iii/) এই খসড়া কর্মপরিকল্পনাটি প্রকাশ করা হয়েছে। ই-কমিটির চেয়ারপারসন সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষকে তৃতীয় পর্যায়ে ই-আদালত পরিকল্পনা সম্পর্কে তাদের সুচিন্তিত মতামত জানানোর অনুরোধ জানিয়েছেন। 
ই-আদালত কর্মসূচির তৃতীয় পর্যায়ের বিষয়ে গতকাল কমিটির চেয়ারপারসন বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় এই কর্মপরিকল্পনা সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষকে অবহিত করেছেন। অ্যাডভোকেট, মামলাকারী, সাধারণ মানুষ, আইন পড়ুয়া, কারিগরি বিশেষজ্ঞ প্রভৃতি পক্ষের কাছে পাঠানো চিঠিতে কমিটির চেয়ারপারসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে ই-আদালত কর্মসূচি রূপায়ণের বিষয়টি মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের ই-কমিটি তত্ত্বাবধান করছে। ন্যাশনাল পলিসি অ্যান্ড অ্যাকশন প্ল্যান ফর ইমপ্লিমেন্টেশন অফ ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন টেকনলজি ইন দ্য ইন্ডিয়ান জুডিশিয়ারি–২০০৫ বা ভারতীয় বিচার ব্যবস্থায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি কার্যকর করার জন্য জাতীয় নীতি ও কর্মপরিকল্পনা-২০০৫ অনুযায়ী গত ১৫ বছর ধরে ই-কমিটির দায়-দায়িত্ব ও ভূমিকার বিষয়গুলি তৈরি হয়েছে। 
ই-কমিটির বিভিন্ন উদ্দেশ্য ই-আদালত কর্মসূচির প্রথম দুটি পর্যায়ে প্রত্যাশা মত পূরণ হয়েছে। কমিটির উদ্দেশ্যগুলির মধ্যে ছিল – দেশে সমস্ত আদালতের মধ্যে আন্তঃযোগাযোগ স্থাপন; ভারতীয় বিচার ব্যবস্থায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির প্রয়োগ; বিচার বিভাগীয় ব্যবস্থায় মামলার নিষ্পত্তি বাড়াতে আদালতগুলিকে উপযুক্ত করে গড়ে তোলা প্রভৃতি। এছাড়াও বিচার বিভাগীয় ব্যবস্থাকে সকলের কাছে সুলভে পৌঁছে দিয়ে বিচার প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা ও দায়বদ্ধতা সুনিশ্চিত করা, যাতে প্রতিটি পর্যায়ে নাগরিক কেন্দ্রিক পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া যায়। শীঘ্রই ই-আদালত কর্মসূচির দ্বিতীয় পর্যায়ের রূপায়ণ শেষ হচ্ছে। এই প্রেক্ষিতে মহামান্য সুপ্রিমকোর্টের ই-কমিটি তৃতীয় পর্যায়ের রূপায়ণের জন্য কর্মপরিকল্পনা প্রনয়ণের উদ্যোগ গ্রহণ করে। তৃতীয় পর্যায়ে ই-আদালত কর্মসূচিতে এমন একটি বিচার বিভাগীয় ব্যবস্থা গড়ে তোলার পরিকল্পনা রয়েছে যেখানে ভৌগলিক পরিবেশ ও পরিস্থিতি নির্বিশেষে সহজেই আদালতের পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া যায়। সেই সঙ্গে আদালতে মানবসম্পদের আরও সুদক্ষ ও কার্যকর সদ্ব্যবহার সুনিশ্চিত করা, যাতে বিচার ব্যবস্থায় এক অনুকূল পরিবেশ গড়ে তুলতে সর্বশেষ প্রযুক্তির প্রয়োগ ঘটানো যায়। যে চারটি মূল বিষয়ের ওপর ভিত্তি করে ই-আদালত কর্মসূচির তৃতীয় পর্যায়ের পরিকল্পানা প্রস্তুত করা হয়েছে, তার মধ্যে রয়েছে মৌলিক মূল্যবোধগুলি সুনিশ্চিত করা; সমগ্র ব্যবস্থাকে আরও শৃঙ্খলাবদ্ধ করে তোলা; এক প্রযুক্তি নির্ভর পরিকাঠামো প্রনয়ণ এবং পরিচালন ক্ষেত্রে এক আদর্শ কাঠামো গঠন। 
ই-আাদালত কর্মসূচির তৃতীয় পর্যায়ের উদ্দেশ্যগুলি সফল রূপায়ণের ক্ষেত্রে সুসামঞ্জস্য, তহবিল সংস্থান, প্রয়োজনীয় সামগ্রী সংগ্রহ তথা এক মজবুত নজরদারি ও মূল্যায়ণ কাঠামো গড়ে তোলা প্রয়োজন। খসড়া কর্মপরিকল্পনাতে এই উদ্দেশ্যগুলি পূরণের ভবিষ্যৎ রূপরেখা রয়েছে। 
ই-আদালত কর্মসূচির তৃতীয় পর্যায় সম্পর্কে আগ্রহীরা তাদের মতামত বা পরামর্শ আগামী ২ সপ্তাহের মধ্যে ই-মেল(ecommittee@aij.gov.in) করে পাঠাতে পারেন। 

CG/BD/AS


(Release ID: 1709546) Visitor Counter : 41