পরিবেশওঅরণ্যমন্ত্রক

রাষ্ট্রসঙ্ঘের পরিবেশ সংক্রান্ত পঞ্চম সভায় প্লাস্টিক ব্যবহারের বিষয়ে ১৭৫টি দেশ ঐতিহাসিক এক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে

Posted On: 03 MAR 2022 1:54PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ৩ মার্চ, ২০২২

 

রাষ্ট্রসঙ্ঘের পরিবেশ সংক্রান্ত পঞ্চম সভার দ্বিতীয় পর্ব ২৮শে ফেব্রুয়ারি থেকে ২রা মার্চ পর্যন্ত নাইরোবিতে অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্লাস্টিক থেকে সৃষ্ট দূষণকে বর্তমানে সারা বিশ্বজুড়ে পরিবেশের একটি বড় সমস্যা বলে বিবেচনা করা হচ্ছে।  প্লাস্টিকের কারণে উদ্ভূত দূষণের বিষয়ে সভায় তিনটি খসড়া প্রস্তাব বিবেচনা করা হয়। এই তিনটি প্রস্তাবের মধ্যে একটি প্রস্তাব ভারত উপস্থাপন করেছে। ভারত যে খসড়া প্রস্তাবটি জমা দিয়েছে তাতে সংশ্লিষ্ট দেশগুলিকে স্বেচ্ছায় যৌথভাবে ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানানো হয়েছে। 

রাষ্ট্রসঙ্ঘের পরিবেশ সংক্রান্ত পঞ্চম সভার দ্বিতীয় পর্বে ভারত উপস্থিত রাষ্ট্রগুলির সঙ্গে প্লাস্টিক থেকে সৃষ্ট দূষণের ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক স্তরে একটি  ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সকলকে ঐক্যমত্যে পৌঁছনোর আহ্বান জানিয়েছে। এর জন্য নতুন একটি আন্তর্জাতিক চুক্তি তৈরি করার প্রস্তাব রাখা হয়েছে। এই চুক্তি তৈরিতে আন্তঃসরকারি আলোচনা সংক্রান্ত কমিটি গঠন করা হবে। 

ভারতের উদ্যোগের ফলে প্লাস্টিক থেকে সৃষ্ট দূষণের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য খসড়া প্রস্তাবে জাতীয় স্তরের পরিস্থিতি বিবেচনার বিষয়টি উল্লেখ করা হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে উন্নয়নশীল দেশগুলির  বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজকর্ম চালিয়ে যেতে সমস্যা হবে না । 

ভারত আন্তঃসরকারি আলোচনা সংক্রান্ত কমিটিতে  নির্দিষ্টভাবে লক্ষ্যমাত্রা, সংজ্ঞা এবং পন্থাপদ্ধতি স্থির করার বিপক্ষে মত প্রকাশ করেছে। সদস্য রাষ্ট্রগুলি যাতে জস্বেচ্ছায় বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করে তার ওপর গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এর ফলে দ্রুত কিছু ব্যবস্থা গ্রহণ ছাড়াও নিয়মিত কিছু উদ্যোগের মাধ্যমে প্লাস্টিক থেকে উদ্ভূত দূষণের সমস্যা দূর হবে।  

দীর্ঘ আলাপ-আলোচনার পর ভারতের খসড়া প্রস্তাবটি প্লাস্টিকের দূষণ রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে যথেষ্ট সহায়ক হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ২রা মার্চ সম্মেলনের শেষে এই প্রস্তাবটি গৃহীত হয়েছে। রাষ্ট্রসঙ্ঘের পরিবেশ সংক্রান্ত পঞ্চম সভার দ্বিতীয় পর্বে জাতীয় পরিস্থিতি ও ক্ষমতা অনুযায়ী সদস্য রাষ্ট্রগুলি একজোট হয়ে যাতে কোনও পদক্ষেপ নিতে পারে, সে বিষয়ে ঐক্যমত্যে পৌঁছেছে। 

১৭৫টি দেশের এই খসড়া প্রস্তাবে সহমত প্রকাশ করার বিষয়টিকে কেন্দ্রীয় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী শ্রী ভূপেন্দ্র যাদব ঐতিহাসিক বলে বর্ণনা করেছেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে দেশ থেকে প্লাস্টিকের কারণে দূষণ রোধে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে প্লাস্টিকের সাহায্যে জিনিসপত্র প্যাকিং করা এবং একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিকের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করার মতো সিদ্ধান্তগুলি রয়েছে। 

প্রস্তাবে সদস্য রাষ্ট্রগুলিকে প্লাস্টিকের কারণে সৃষ্ট দূষণ রোধে স্বেচ্ছায় পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল – প্লাস্টিকের উৎপাদন ও ব্যবহারের ক্ষেত্রে স্থিতিশীলতা বজায় রাখা এবং বৃত্তাকার অর্থনীতির বিষয়টি বিবেচনা করে জাতীয় স্তরে প্রয়োজনীয় পরিকল্পনা করা। আন্তঃসরকারি আলোচনা সংক্রান্ত কমিটির প্রথম অধিবেশনে যথাযথ কিছু উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য প্রস্তাবে সভার একজিকিউটিভ ডিরেক্টরকে অনুরোধ জানানো হয়েছে । এক্ষেত্রে প্লাস্টিক থেকে উদ্ভূত দূষণের বিষয়ে তথ্যের আদানপ্রদান নিয়ে আলোচনা হবে। এর আগে ভারত একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিকের থেকে উদ্ভূত দূষণ নিয়ে রাষ্ট্রসঙ্ঘের পরিবেশ সংক্রান্ত চতুর্থ সভায় একটি প্রস্তাব পেশ করেছিল। সেই সভা ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত হয়।  

কেন্দ্রীয় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রক একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিকের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। এই ধরনের প্লাস্টিক খুব কম কাজে ব্যবহার করা সম্ভব এবং এগুলি যত্রতত্র ফেলে দেওয়া হয়। প্লাস্টিক দিয়ে প্যাকেজিং-এর ক্ষেত্রেও উৎপাদকদের দায়বদ্ধতার জন্য একটি নীতি-নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। এভাবে প্লাস্টিকের কারণে দূষণের হাত থেকে বাঁচতে ভারতে প্রয়োজনীয় আইনি সংস্থান করা হয়েছে। 

 

CG/CB/DM/



(Release ID: 1802713) Visitor Counter : 262