প্রতিরক্ষামন্ত্রক

কলকাতার জিআরএসই-তে প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রীর উপস্থিতিতে ভারতীয় নৌবাহিনীর জন্য চারটি বৃহৎ আকারের সার্ভে ভেসেলের মধ্যে প্রথমটি বাহিনীকে হস্তান্তর করা হয়েছে

Posted On: 05 DEC 2021 6:43PM by PIB Kolkata
নতুন দিল্লি, ০৫ ডিসেম্বর, ২০২১
 
কলকাতায় ভারতীয় নৌবাহিনীর জন্য বৃহৎ আকারের চারটি সার্ভে ভেসেলসের মধ্যে প্রথমটি “সন্ধ্যায়ক”-কে বাহিনীর কাছে হস্তান্তরিত করা হয়েছে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের রাষ্ট্রায়ত্ত্ব সংস্থা গার্ডেন রিচ শিপবিল্ডার্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ার্স (জিআরএসই) লিমিটেড এই ভেসেলগুলি তৈরি করছে। প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রী শ্রী অজয় ভাট –এর উপস্থিতিতে হুগলী নদীতে ৫ই ডিসেম্বর বেলা ২টো ২০ মিনিটে নৌযানটি তার যাত্রা শুরু করে। সামুদ্রিক রীতি অনুযায়ী শ্রী ভাটের স্ত্রী শ্রীমতী পুষ্পা ভাট অথর্ব বেদের মন্ত্রোচ্চারণের মধ্য দিয়ে সার্ভে ভেসেলটির যাত্রার সূচনা করেন। 
বন্দর অঞ্চলে সামুদ্রিক নাব্যতা পরীক্ষা করার জন্য হাইড্রোগ্রাফিক সমীক্ষার প্রয়োজন। এই নৌযানগুলি এধরণের  সমীক্ষার কাজ করে। সমীক্ষা থেকে প্রাপ্ত ফল দেশের প্রতিরক্ষার কাজে ব্যবহৃত হয়। সার্ভে ভেসেলসে দুটি ডিজেল চালিত ইঞ্জিন থাকে। প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সময় এই নৌযানের সাহায্যে উদ্ধার কাজ চালানো যায়। তাই এখানে চিকিৎসার ব্যবস্থাও রয়েছে।  
প্রতিরক্ষা মন্ত্রক জিআরএসই-কে ২০১৮র ৩০শে অক্টোবর চারটি সার্ভে ভেসেলস তৈরির দায়িত্ব দেয়। ভারতীয় নৌবাহিনীর চাহিদা অনুযায়ী জিআরএসই, নৌযানগুলিতে সব রকমের  ব্যবস্থা করেছে। এই জাহাজগুলিতে ৮০ শতাংশ যন্ত্রাংশই দেশে তৈরি। যেগুলি বিভিন্ন সংস্থা থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে। 
জিআরএসই-র উদ্যোগের প্রশংসা করে প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আত্মনির্ভর ভারত অভিযানকে সফল করে তুলতে এবং মেক ইন ইন্ডিয়া কর্মসূচির বাস্তবায়নের অঙ্গ হিসেবে দেশের বিভিন্ন জাহাজ তৈরির কারখানায় ৩৭টি যুদ্ধ জাহাজ তৈরি করা হচ্ছে। শ্রী ভাট জিআরএসই এবং ভারতীয় নৌবাহিনীর যৌথ উদ্যোগে জাতীয় স্বার্থে বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নের প্রশংসা করেন। এর মধ্যে ১৭এ যুদ্ধ জাহাজ ও কম জলে যেতে পারে ডুবো জাহাজ প্রতিরোধী এমন জলযান রয়েছে। 
কেন্দ্র, সমুদ্র অর্থনীতি বা নীল অর্থনীতিকে বিশেষ অগ্রাধিকার দিচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে সার্ভে ভেসেল সামুদ্রিক অঞ্চলে স্থিতিশীল উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। শ্রী ভাট আশা করেন, “সন্ধ্যায়ক” ভারতীয় জাহাজগুলিকে নিরাপদে চলাচল করতে সাহায্য করার পাশাপাশি ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের বন্ধু রাষ্ট্রগুলির জাহাজকেও সাহায্য করবে। 
জিআরএসই বাকি তিনটি জাহাজ কাট্টুপাল্লিতে মেসার্স এল অ্যান্ড টি শিপবিল্ডিংকে নির্মাণের দায়িত্ব দিয়েছে। জিআরএসই -র চেয়ারম্যান ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর অবসরপ্রাপ্ত রিয়ার অ্যাডমিরাল বিপিন কুমার সাকসেনা বলেন, সার্ভে ভেসেলগুলিতে দেশীয় অত্যাধুনিক হাইড্রগ্রাফিক্স যন্ত্রাংশ দেওয়া হয়েছে। কোভিড – ১৯ মহামারীর মধ্যেও জিআরএসই এই নৌযানটি তৈরি করেছে।  জাহাজ জলে ভাসানোর এই অনুষ্ঠানটি প্রথমবার কলকাতার বিভিন্ন স্কুলের ১০০ জন ছাত্রছাত্রী, জাতীয় সমর শিক্ষার্থী বাহিনীর ক্যাডেটরা এবং অন্যান্য অনেকে প্রত্যক্ষ করেছেন।    
 
CG/CB/SFS


(Release ID: 1778661) Visitor Counter : 151


Read this release in: English , Urdu , Hindi , Tamil