শিল্পওবাণিজ্যমন্ত্রক

“সরকারি ই-মার্কেটপ্লেস (জেম) ব্যবস্থায় গোপন আঁতাত এবং একচেটিয়া বাজার দখলদারির বিরুদ্ধে সতর্ক থাকার পরামর্শ” - শ্রী পীযূষ গোয়েল

Posted On: 03 NOV 2021 3:33PM by PIB Kolkata
নয়াদিল্লি, ৩ নভেম্বর, ২০২১
 
 
কেন্দ্রীয় বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী শ্রী পীযূষ গোয়েল সরকারি ই-মার্কেটপ্লেস (জেম) ব্যবস্থায় অশুভ আঁতাত এবং একচেটিয়ে বাজার দখলদারির বিরুদ্ধে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন। এই প্রেক্ষিতে তিনি আধিকারিকদের সরকারি ই-মার্কেটপ্লেস ব্যবস্থাকে আরও বেশি সুলভ করে তোলার পাশাপাশি বাণিজ্যিক লেনদেন বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব দিতে বলেন।
 
সরকারি ই-মার্কেটপ্লেস ব্যবস্থায় আরও স্বচ্ছতা নিয়ে আসার ওপর জোর দিয়ে শ্রী গোয়েল ই-মার্কেটপ্লেস ব্যবস্থাকে কারিগরি ও আর্থিক দিক থেকে আরও বেশি সুসংহত করে তুলতে নিয়মিতভাবে অডিট বা হিসাবনিকাশ করার পরামর্শ দেন। তিনি বৈদ্যুতিন এই বাজার ব্যবস্থাকে আরও বেশি ব্যবহার ও বাণিজ্য-বান্ধব করে তোলার জন্য আধিকারিকদের নির্দেশ দেন যাতে সহজেই আরও বেশি ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার ঘটানো যায়। ই-মার্কেটপ্লেস পোর্টালে আরও বেশি ব্যবসায়ীদের আকৃষ্ট করতে শুল্ক কমানোর বা ঊর্ধ্বসীমা স্থির করে দেওয়ার জন্য আধিকারিকদের পরামর্শ দেন। মন্ত্রী সরকারি ই-মার্কেটপ্লেস পোর্টালের সঙ্গে যুক্ত সংশ্লিষ্ট সকলকে বৈদ্যুতিন এই বাজার ব্যবস্থায় আরও বেশি কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার প্রয়োগ এবং পোর্টালটিকে আরও সরল ব্যবহারোপযোগী করে তোলার লক্ষ্যে লেনদেন ও বাণিজ্যের পরিমাণ বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব দিতে বলেন। এই প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার প্রয়োগ বাড়লে একদিকে যেমন ক্রেতারা লাভবান হবেন, অন্যদিকে তেমনই লেনদেনেও স্বচ্ছতা বজায় থাকবে। প্রকৃতপক্ষে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ই-মার্কেটপ্লেস পোর্টালে নজরদারির ভূমিকা পালন করবে। পক্ষান্তরে অসাধু ব্যবসায়িক পন্থা এবং গোপন আঁতাতের মতো ঘটনা হ্রাস পাবে। সেইসঙ্গে, একচেটিয়া বাজার দখল ব্যবস্থাও নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে। শ্রী গোয়েল অসাধু ব্যবসায়িক পন্থা ও একচেটিয়া বাজার দখলের মতো বিষয়গুলিতে আধিকারিকদের কড়া নজর রাখার পরামর্শ দিয়ে বলেন, সকলের স্বার্থে স্বচ্ছতা যেমন বজায় রাখতে হবে তেমনই এই পোর্টালের কাজকর্ম নিয়ে যাতে কোনও দ্বিধা-দ্বন্দ্ব দেখা না দেয় তাও সুনিশ্চিত করতে হবে।
 
শ্রী গোয়েল ১০০ শতাংশ সরকারি মালিকানাধীন সরকারি ই-মার্কেটপ্লেস ব্যবস্থায় বকেয়া হিসাবনিকাশ দ্রুত শেষ করার কথা বলেন। সরকারি এই ই-মার্কেটপ্লেস ব্যবস্থার মাধ্যমে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান পণ্য ও পরিষেবা সংগ্রহ করে থাকে। 
 
উল্লেখ করা যেতে পারে, সরকারি ই-মার্কেটপ্লেস ব্যবস্থা ২০১৬-র ৯ আগস্ট শুরু হওয়ার সময় থেকে এখনও পর্যন্ত লেনদেনের পরিমাণ ৯০ গুণের বেশি হয়েছে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০১৬-১৭ অর্থবর্ষে লেনদেনের পরিমাণ ৪২২ কোটি টাকা থেকে বেড়ে গত অর্থবর্ষে তা দাঁড়িয়েছে ৩৮,৬২০ কোটি টাকায়। এর মধ্যে ক্ষুদ্র ও মাঝারি সংস্থাগুলির উৎপাদিত পণ্যসামগ্রীর লেনদেনের পরিমাণ ৫৬.৭ শতাংশ। এই পোর্টালে ৫৫,৪০০টির বেশি ক্রেতা এবং ৩০ লক্ষ ৬৬ হাজারের বেশি বিক্রেতা সংস্থা যুক্ত রয়েছে। এমনকি, এই পোর্টালের মাধ্যমে ১৬,৪০০-র বেশি বিভিন্ন ধরনের পণ্যসামগ্রী এবং ২০৬টি ভিন্ন ভিন্ন ক্ষেত্রের পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া হয়। সম্প্রতি জেম পোর্টাল সংগ্রহ ব্যবস্থায় উৎকর্ষতার নিদর্শনস্বরূপ ডিজিটাল প্রযুক্তি ক্ষেত্রে সিআইপিএস পুরস্কার পেয়েছে। উল্লেখ করা যেতে পারে, আন্তর্জাতিক এই পুরস্কার ই-বাণিজ্য ব্যবস্থার সঙ্গে যুক্ত সেই সমস্ত ক্ষেত্রগুলিকে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য দেওয়া হয় যারা প্রযুক্তির প্রয়োগ ঘটিয়ে পণ্য ও পরিষেবার লেনদেনে উৎকর্ষতার নিদর্শন রেখেছে। লন্ডনের চার্টার্ড ইনস্টিটিউট প্রোকিওরমেন্ট অ্যান্ড সাপ্লাই প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে এই পুরস্কার দেওয়া হয়ে থাকে। 
 
 
CG/BD/DM/


(Release ID: 1769289) Visitor Counter : 119


Read this release in: English , Malayalam , Hindi , Urdu