জলশক্তি মন্ত্রক

সরকার জল জীবন মিশনের আওতায় ২০২১-২২ অর্থবর্ষে ১৫টি রাজ্যকে কেন্দ্রীয় অনুদান হিসাবে ৫ হাজার ৯৬৮ কোটি টাকা দিয়েছে

Posted On: 17 MAY 2021 7:11PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ১৭ মে, ২০২১

কেন্দ্রীয় সরকার জল জীবন মিশন রূপায়ণের জন্য ২০২১-২২ অর্থবর্ষে ১৫টি রাজ্যকে ৫ হাজার ৯৬৮ কোটি টাকা দিয়েছে। চলতি অর্থবর্ষে চার কিস্তিতে রাজ্যগুলিকে যে আর্থিক অনুদান দেওয়া হবে, এটি তার প্রথম কিস্তি। জল জীবন মিশনের আওতায় কেন্দ্রীয় অর্থ সাহায্য পাওয়া ১৫টি রাজ্য বাদে বাকি ১৭টি রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে তহবিল নেওয়ার জন্য প্রস্তাব পাঠাতে বলা হয়েছে।
জল জীবন মিশনের আওতায় বরাদ্দকৃত কেন্দ্রীয় তহবিলের মধ্যে ৯৩ শতাংশ খরচ করা হয় জল সরবরাহ পরিকাঠামোর মানোন্নয়নে, ৫ শতাংশ খরচ করা হয় পরিকাঠামো সংক্রান্ত অন্যান্য কাজে এবং বাকি ২ শতাংশ জলের গুণমান নজরদারি ও তদারকির কাজে খরচ করা হয়। রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিতে পাইপ-বাহিত জল সংযোগের সংখ্যার নিরিখে এবং হাতে থাকা কেন্দ্রীয় তহবিলের অর্থের সদ্ব্যবহারের ভিত্তিতে কেন্দ্রীয় তহবিল দেওয়া হয়ে থাকে। রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে কেন্দ্রীয় তহবিলের অব্যবহৃত অর্থ ১৫ দিনের মধ্যে কেন্দ্রীয় তহবিলে ফেরৎ পাঠাতে হয়। তহবিলে সম্পূর্ণ অর্থের যথাযথ সদ্ব্যবহারের জন্য অব্যবহৃত অর্থ কেন্দ্রীয় তহবিলে ফেরৎ পাঠাতে হয়।
কেন্দ্রীয় সরকার জল জীবন মিশন কর্মসূচি রূপায়ণে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিচ্ছে। এই লক্ষ্যে ২০২১-২২ অর্থবর্ষে এই কর্মসূচি রূপায়ণের জন্য বাজেট বরাদ্দ লক্ষ্যণীয় হারে বাড়িয়ে ৫০ হাজার ১১ কোটি টাকা করা হয়েছে। এছাড়াও, পঞ্চদশ অর্থ কমিশনের অনুদান বাবদ পঞ্চায়েতি রাজ প্রতিষ্ঠানগুলিকে জল এবং স্যানিটেশন পরিষেবা বাবদ ২৬ হাজার ৯৪০ কোটি টাকা দেওয়া হবে। গ্রামীণ পরিবারগুলিকে পাইপ-বাহিত জল সংযোগ পৌঁছে দেওয়ার জন্য ২০২১-২২ অর্থবর্ষে ১ লক্ষ কোটি টাকারও বেশি ব্যয়ের পরিকল্পনা করা হয়েছে। ‘হর ঘর জল’ – প্রতিটি বাড়িতে পাণীয় জল পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্য পূরণে আগামী তিন বছরে বিপুল পরিমাণ অর্থ বরাদ্দের পরিকল্পনা অব্যাহত থাকতে হবে মনে করা হচ্ছে।
উল্লেখ করা যেতে পারে, প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী ২০২৪ সালের মধ্যে প্রতিটি গ্রামীণ পরিবারে পাইপ-বাহিত জল সংযোগ পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে ২০১৯ সালের ১৫ অগাস্ট জল জীবন মিশন কর্মসূচি চালু করার কথা ঘোষণা করেন।

CG/BD/SB



(Release ID: 1719403) Visitor Counter : 49


Read this release in: English