ক্রেতা, খাদ্যএবংগণবন্টনমন্ত্রক

বর্তমান অর্থবর্ষে ইথানল উৎপাদনের জন্য ফুড কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়ার চালের দাম একই থাকবে- কুইন্টাল প্রতি ২ হাজার টাকা

Posted On: 01 MAY 2021 7:33PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লী, ১লা মে, ২০২১

কৃষি ভিত্তিক অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে, আমদানি করা জীবাশ্ম জ্বালানীর ওপর নির্ভরশীলতা কমাতে, অশোধিত পেট্রোলিয়াম আমদানির জন্য বিদেশী মুদ্রার সাশ্রয় এবং বায়ুদূষণ হ্রাস করতে কেন্দ্র ২০২২ সালের মধ্যে পেট্রলে ১০ শতাংশ ইথানল মেশানোর লক্ষ্যমাত্রা ধার্য করেছে। ২০২৫ সালে যা বেড়ে হবে ২০ শতাংশ।
আখ চাষিদের স্বার্থরক্ষা করতে কেন্দ্র বি-হেভি মোলাসাস, আখের রস, চিনির রস এবং চিনি থেকে ইথানল উৎপাদনে অনুমতি দিয়েছে। এর ফলে চিনিকলগুলি বাড়তি আখ থেকে ইথানল উৎপাদন করতে উৎসাহিত হবে। ২০১৯-২০ চিনি বর্ষে তরলীকৃত ৯ মেট্রিক টন চিনি ইথানল উৎপাদনে ব্যয় হয়েছে। ২০২০-২১ এ যা বেড়ে ২০ মেট্রিক টনের বেশি হবে। ২০২৫এ ৫০-৬০ মেট্রিক টন বাড়তি চিনি ইথানল উৎপাদনে ব্যবহার করা হবে। এর ফলে চিনিকলগুলির মূলধনের সমস্যা দূর হবে, আখ চাষিদের সঠিক সময়ে দাম মেটাতে পারবে। এর আগের তিনটি চিনি বর্ষে তেল সংস্থাগুলিকে ইথানল বিক্রি করে চিনিকল এবং অ্যালকোহল প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলি ২২ হাজার কোটি টাকা আয় করেছে।
সরকার ইথানল, জীবাশ্ম জ্বালানীর মধ্যে মেশানোর পরিমাণ বাড়াতে উদ্যোগী হয়েছে। এখন জোয়ার ও ফুড কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া (এফসিআই)এর চালকে ইথানল উৎপাদনের কাজে লাগানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে। আগামীদিনে এফসিআইএর চাল থেকে অ্যালকোহল প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলি ইথানল উৎপাদন করতে পারবে। এর ফলে বাড়তি ফসল সহজেই ব্যবহার করা যাবে এবং কৃষকরা উৎপাদিত ফসলের ভালো দাম পাবেন। এর মাধ্যমে দেশের কোটি কোটি কৃষকের আয় বাড়বে।
সরকার ২০২০-২১ অর্থবর্ষে ইথানল উৎপাদনের জন্য ভুট্টার দাম লিটার প্রতি ৫১ টাকা ৫৫ পয়সা এবং এফসিআই-এর চালের দাম ৫৬ টাকা ৮৭ পয়সা ধার্য করেছে। এই অর্থবর্ষে ইথানল উৎপাদনের জন্য এফসিআই চালের দাম কুইন্টাল প্রতি ২ হাজার টাকা নির্ধারিত হয়েছে। ২০২১-২২ অর্থবর্ষে এই দাম অপরিবর্তিত থাকবে। এর ফলে সংশ্লিষ্ট শিল্পের মধ্যে আস্থা তৈরি হবে, কাঁচামালের দাম অপরিবর্তিত থাকবে এবং বাজারে এর লভ্যতা বজায় থাকবে। অতিরিক্ত চাল ইথানল উৎপাদনের জন্য সংগ্রহ করবার জন্য অ্যালকোহল প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলি নিকটবর্তী যেকোন এফসিআই-এর গুদাম থেকে তা সংগ্রহ করতে পারবে।
২০২০-২১ ইথানল সরবরাহ বর্ষে (ডিসেম্বর থেকে নভেম্বর ) জ্বালানীর মধ্যে ৮.৫ শতাংশ ইথানল মেশানোর লক্ষ্যমাত্রা ধার্য করা হয়েছিল। এর জন্য ৩২৫ কোটি লিটার ইথানল তেল সংস্থাগুলিকে সরবরাহ করার প্রয়োজন। ২৬ এপ্রিল পর্যন্ত প্রাপ্ত হিসেবে তেল কোম্পানীগুলি চিনিকল এবং অ্যালকোহল প্রস্তুতকারী সংস্থা থেকে ৩৪৯ কোটি লিটার ইথানল সংগ্রহ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর জন্য অ্যালকোহল প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলির সঙ্গে যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে তার ফলে ৩০২ কোটি লিটার ইথানল সংস্থাগুলিকে সরবরাহ করা হবে। ২০২১-২২ ইথানল সরবরাহ বর্ষে তেল কোম্পানীগুলি ৪০০ কোটি লিটার ইথানল সংগ্রহ করার উদ্যোগ নিয়েছে। এর ফলে পেট্রলের মধ্যে ১০ শতাংশ ইথানল মিশিয়ে তা ব্যবহার করার লক্ষমাত্রা পূরন যাবে।
খাদ্য ও গণবন্টন দপ্তর ১৪ জানুয়ারি এক নতুন বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে এই উদ্যোগে সহায়তার জন্য চিনিকল ও অ্যালকোহল প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলির ঋণের ওপর সুদের হার মকুব করার পরিমাণ পরিবর্তিত হবে। দপ্তর ৪২ হাজার কোটি টাকার ঋণ দেওয়ার জন্য ৪২২টি প্রস্তাব অনুমোদন করেছে। এর ফলে ১৬৮৪ কোটি লিটার ইথানল উৎপাদন করা যাবে। আশা করা যায় আগামী ২-৪ বছর ৬০০ কোটি লিটার ইথানল উৎপাদন করা যাবে। এর ফলে ২০২৪-২৫ সালের মধ্যে ইথানল উৎপাদনের ক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়ে ১৫০০ কোটি লিটার পৌঁছাবে এবং ২০২৫ সালের মধ্যে জ্বালানীতে ২০ শতাংশ ইথানল মেশানোর লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হবে।
উত্তরপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র এবং কর্ণাটক- মূলত এই তিনটি রাজ্য থেকে আখ এবং ইথানল উৎপন্ন হয়। উৎপাদিত ইথানল এই তিন রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে নিয়ে যাওয়ার জন্য পরিবহণ খাতে প্রচুর ব্যয় হয়। দেশজুড়ে অ্যালকোহল উৎপাদনকারী সংস্থাগুলি নতুন খাদ্যশস্যের থেকে ইথানল উৎপাদন করতে পারলে পরিবহণ খাতে ব্যয় কম, নির্ধারিত সময়ে ইথানল মেশানোর লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হবে এবং দেশজুড়ে কৃষকরা উপকৃত হবেন।
ইথানল উৎপাদনের জন্য যথেষ্ট খাদ্যশস্য রয়েছে এবং সরকার ইথানলের জন্য আকর্ষণীয় মূল্য নির্ধারণ করেছে। তেল উৎপাদনকারী সংস্থাগুলি অ্যালকোহল উৎপাদক সংস্থাগুলি থেকে আগামী ১০-১৫ বছর বিপুল পরিমাণে ইথানল সংগ্রহ করবে বলে আশ্বস্ত করেছে। পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রক ইথানল উৎপাদনের জন্য পরিবেশ সংক্রান্ত অনুমতির ছাড়পত্র দ্রুত মঞ্জুর করতে উদ্যোগী হয়েছে। ইথানল উৎপাদনের প্রকল্পে ঋণ অনুমোদন ও ঋণের টাকা বন্টনের জন্য আর্থিক পরিষেবা দপ্তর এবং ভারতীয় স্টেট ব্যাঙ্ক সাধারণ পরিচালন পদ্ধতি তৈরি করেছে। এর ফলে ঋণ বিতরণে সুবিধা হবে।
বাড়তি চিনি থেকে ইথানল উৎপাদন ছাড়াও ভুট্টা এবং জোয়ার থেকে ইথানল উৎপাদনের জন্য কৃষকদের উৎসাহিত করা হচ্ছে। ভুট্টা এবং জোয়ার চাষে কম জল লাগে। এর ফলে বিভিন্ন জায়গা থেকে ইথানলের উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে, সরকারের পেট্রলের মধ্যে ইথানল মেশানোর লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হবে এবং অশোধিত তেল আমদানির ওপর নির্ভরশীলতা কমবে এবং আত্মনির্ভর ভারতের পথে এগোন যাবে। ইথানল উৎপাদনের জন্য নতুন কারখানা গড়ে তোলার পাশাপাশি কৃষকদের ফসলের চাহিদা বাড়বে এবং তারা ফসলের থেকে ভালো দাম পাবেন।

SC/CB /NS



(Release ID: 1715554) Visitor Counter : 23


Read this release in: English