অর্থমন্ত্রক

কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রক আজ কর আরোপ ও অন্যান্য আইন (নির্দিষ্ট কিছু ধারায় ছাড়) অধ্যাদেশ, ২০২০ জারি করেছে

Posted On: 31 MAR 2020 11:14PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ৩১ মার্চ, ২০২০

 

 


কোভিড-১৯ মহামারীর প্রেক্ষিতে বিভিন্ন ক্ষেত্রে আইনমান্যতাকারী সংবিধিবদ্ধ ও নিয়ন্ত্রণমূলক বিষয়ে ছাড় দেওয়ার যে কথা কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী গত ২৪শে মার্চ এক প্রেস বিক্জ্ঞপ্তিতে জানিয়েছিলেন, তা কার্যকর করতে সরকার আজ এক অধ্যাদেশ এনেছে। এই অধ্যাদেশে কর আরোপ ও বেনামী আইনের আওতায় বিভিন্ন সময়সীমায় ছাড় দেওয়ার কথা  বলা হয়েছে।


উল্লেখ করা যেতে পারে যে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনা ভাইরাস মহামারীর প্রেক্ষিতে ব্যাপক জীবনহানি হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) সহ বিভিন্ন দেশের সরকার এবং ভারত সরকারও কোভিড-১৯ সংক্রমণকে মহামারী ঘোষণা করেছে। এই ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধের ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার বিষয়টি সেরা উপায় হিসাবে সর্বস্তরে স্বীকৃতি পেয়েছে। তাই, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে দেশে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। উল্লেখ করা যেতে পারে, কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী গত ২৪শে মার্চ কোভিড-১৯ মহামারীর প্রেক্ষিতে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সংবিধিবদ্ধ ও আইনমান্যতাকারী প্রতিষ্ঠানগুলির জন্য একাধিক ছাড় দেওয়ার কথা ঘোষণা করে।


আজ সরকারের পক্ষ থেকে যে অধ্যাদেশ জারি করা হয়েছে, তার গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি বৈশিষ্ট হল : -

২০১৯-২০ অর্থবর্ষের সংশধিত আয়কর সহ প্রকৃত আয়কর দাখিল করার শেষ তারিখ আগামী ৩০শে জুন।

আধার-প্যান সংযুক্তিকরণের সময়সীমা বাড়িয়ে আগামী ৩০শে জুন করা হয়েছে ।

আয়কর আইনের চ্যাপ্টার-vi এবি ধারা আওতায় ছাড়ের দাবি জানানোর জন্য বিভিন্ন ধরনের বিনিয়োগ বা মাশুল মেটানোর শেষ তারিখ বাড়িয়ে আগামী ৩০শে জুন করা হয়েছে।

আয়কর আইনের ৫৪ থেকে ৫৪জিবি ধারা অনুযায়ী মূলধন সংগ্রহের ক্ষেত্রে রোলওভার বেনিফিট বা ছাড় দেওয়ার দাবি জানাতে বিনিয়োগ বা ক্রয়ের ক্ষেত্রে শেষ তারিখ বাড়িয়ে আগামী ৩০শে জুন করা হয়েছে।


আয়কর আইনের ১০এএ ধারার আওতায় ছাড় সংক্রান্ত দাবি-দাওয়ার জন্য বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলিতে কাজকর্ম শুরু করার সময়সীমা বাড়িয়ে আগামী ৩০শে জুন করা হয়েছে।

বিভিন্ন প্রত্যক্ষ কর ও বেনামী আইনের আওতায় নির্দেশ বা বিজ্ঞপ্তি জারির সময়সীমা বাড়িয়ে আগামী ৩০শে জুন করা হয়েছে।

মার্চ, এপ্রিল ও মে মাসে প্রদেয় বকেয়া কেন্দ্রীয় উৎপাদন শুল্ক রিটার্ন সংক্রান্ত সংশোধিত তথ্য দাখিল করার শেষ তারিখ আগামী ৩০শে জুন করা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় উৎপাদন শুল্ক আইন অনুযায়ী, আবেদনপত্র দাখিল, রিটার্ন সংক্রান্ত আবেদনপত্র দাখিল প্রভৃতি ক্ষেত্রে সময়সীমা বাড়িয়ে আগামী ৩০শে জুন করা হয়েছে।

সীমা শুল্ক আইন, ১৯৬২’র আওতায় আবেদনপত্র, রিফান্ড সংক্রান্ত আবেদনপত্র প্রভৃতি দাখিলের ক্ষেত্রে সময়সীমা বাড়িয়ে আগামী ৩০শে জুন করা হয়েছে।

সবকা বিসওয়াস আইনি বিবাদ নিষ্পতি প্রকল্প ২০১৯ অনুযায়ী, বকেয়া মেটানোর ক্ষেত্রে ছাড়ের সুবিধা বাড়িয়ে আগামী ৩০শে জুন পর্যন্ত করা হয়েছে।

পিএম কেয়ার্স

করোনা ভাইরাস মহামারীতে আক্রান্ত ব্যক্তিদের ত্রাণ সুবিধা পৌঁছে দিতে আপৎকালীন পরিস্থিতিতে নাগরিকদের সহায়তা ও ত্রাণ পরিষেবার জন্য ‘পিএম কেয়ার্স’ তহবিল নামে একটি বিশেষ তহবিল গঠন করা হয়েছে। এই তহবিলে অর্থদান করলে আয়কর আইনের ৮০ই ধারার আওতায় ১০০ শতাংশ কর ছাড় মিলবে। প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ত্রাণ তহবিলে দান করলে যেমন কর ছাড় মেলে, তেমনই ‘পিএম কেয়ার্স’ তহবিলে অর্থদান করলে আগামী ৩০শে জুন পর্যন্ত কর ছাড়ে সুবিধা পাওয়া যাবে। তাই কোনও ব্যক্তি যদি ২০২০-২১ অর্থবর্ষের উপার্জন থেকে ‘পিএম কেয়ার্স তহবিলে অর্থদান করেন, তা হলে আগামী ৩০শে জুন পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ২০১৯-২০’র উপার্জিত অর্থের ওপর ৮০ডি ধারা অনুযায়ী ছাড় দাবি করতে পারেন।

 

 


CG/BD/SB



(Release ID: 1609912) Visitor Counter : 84


Read this release in: English