স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক

বোড়ো চুক্তি – প্রধানমন্ত্রীর ‘সবকা সাথ, সবকা বিকাশ, সবকা বিশ্বাস’-এর দৃষ্টিভঙ্গির আরও একটি সফলতা : শ্রী অমিত শাহ

Posted On: 27 JAN 2020 9:24PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ২৭ জানুয়ারি, ২০২০

 

 

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী শ্রী অমিত শাহ অর্ধ শতাব্দীরও বেশি পুরনো বোড়ো সমস্যার সমাধানের লক্ষ্যে আজ নতুন দিল্লিতে ভারত সরকার, অসম সরকার ও বোড়ো প্রতিনিধিদের মধ্যে ঐতিহাসিক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। বোড়ো অঞ্চলের সমস্যার এক স্থায়ী সমাধান খুঁজে পাওয়া গেছে। বোড়ো অঞ্চলে সমস্যা ও অশান্তির দরুণ চার হাজার মানুষের জীবনহানি ঘটেছে।

এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অসমের মুখ্যমন্ত্রী শ্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল, ঐ রাজ্যের মন্ত্রী শ্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা, বোড়োল্যান্ড আঞ্চলিক পর্ষদের (বিটিসি) প্রতিনিধি শ্রী হাগরামা মোহিলারি, অল বোড়ো স্টুডেন্টস ইউনিয়নের প্রতিনিধি, ইউনাইটেড বোড়ো পিপল অর্গানাইজেশনের প্রতিনিধি এবং ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্ট অফ বোড়োল্যান্ডের একাধিক প্রতিনিধি ছাড়াও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক ও অসম সরকারের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরাও উপস্থিত ছিলেন।

এই চুক্তির সঙ্গে ১,৫০০-রও বেশি সশস্ত্র ক্যাডার হিংসা ত্যাগ করে সমাজের মূলস্রোতে যোগ দেবেন বলে মনে করা হচ্ছে। বোড়ো অঞ্চলের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে বিশেষ উন্নয়নমূলক প্যাকেজ খাতে আগামী তিন বছরে ১,৫০০ কোটি টাকা দেওয়া হবে। এই উপলক্ষে শ্রী শাহ এই ঐতিহাসিক ঘটনাকে অসমের সোনালী ভবিষ্যতের লক্ষ্যে অগ্রদূত হিসেবে বর্ণনা করেন। প্রধানমন্ত্রী শ্রী মোদী উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সার্বিক উন্নয়নের যে পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন এই চুক্তি তার একটি প্রত্যক্ষ প্রতিফলন। প্রধানমন্ত্রীর এই পরিকল্পনার সুফল গত ১৬ই জানুয়ারি ‘ব্রু-রিয়াং’ চুক্তির ক্ষেত্রেও সুস্পষ্ট হয়েছে। ‘ব্রু-রিয়াং’ চুক্তি স্বাক্ষর হওয়ার ফলে দীর্ঘ সময় ধরে মেঘালয় ও ত্রিপুরাতে যে মানবিক সঙ্কট চলছিল, তার সমাধান হয়েছে। এমনকি, আজকের এই চুক্তির ফলে সম্প্রতি অসমে ৬৪৪ জন সশস্ত্র ক্যাডার এবং ত্রিপুরায় এনএলএফটি-র ৮৮ জন সশস্ত্র ক্যাডার আত্মসমর্পণ করে সমাজের মূলস্রোতে ফিরে আসতে চেয়েছেন।

শ্রী শাহ আরও বলেন, এই চুক্তি প্রধানমন্ত্রীর ‘সবকা সাথ, সবকা বিকাশ, সবকা বিশ্বাস’-এর দৃষ্টিভঙ্গির আরও একটি সাফল্য। এই চুক্তির ফলে অসমের উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাওয়ার বিষয়টি সুনিশ্চিত হল। তিনি আরও জানান, চুক্তি অনুযায়ী বোড়োল্যান্ড টেরিটোরিয়াল এরিয়া ডিস্ট্রিক্টের বাইরে বসবাসকারী বোড়ো জনজাতির সঙ্গে জড়িত বিভিন্ন সমস্যার সমাধান সম্ভব হবে, বোড়োদের সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ভাষাগত ও জাতিগত সত্ত্বা সুরক্ষিত হবে, আদিবাসীদের জমির অধিকার সুরক্ষার ক্ষেত্রে আইনি রক্ষাকবচ মিলবে এবং আদিবাসী এলাকার দ্রুত উন্নয়ন সুনিশ্চিত হবে। মোদী সরকার ক্ষমতায় আসার পর ২০১৯-এর আগস্ট থেকে বহু দশক পুরনো বোড়ো আন্দোলনের সুসংবদ্ধ সমাধানে পৌঁছনোর লক্ষ্যে বিভিন্ন বোড়ো সংগঠন, অল বোড়ো স্টুডেন্টস ইউনিয়ন এবং ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্ট অফ বোড়োল্যান্ডের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিস্তারিত আলাপ-আলোচনা শুরু হয়। এই আলাপ-আলোচনার পরিণতিস্বরূপ আজ এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

 

 

CG/BD/DM



(Release ID: 1600767) Visitor Counter : 17


Read this release in: English