বিজ্ঞানওপ্রযুক্তিমন্ত্রক
azadi ka amrit mahotsav g20-india-2023

মহাজগতের সূচনার সময়কালের তরঙ্গ খুঁজে পাওয়া সংক্রান্ত সাম্প্রতিক দাবিটি সারস-৩ রেডিও টেলিস্কোপের মাধ্যমে বাতিল হয়ে গেছে

Posted On: 03 MAR 2022 3:39PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ৩ মার্চ, ২০২২

 

ভারতীয় গবেষকরা সম্প্রতি মহাজগতের সূচনার সময়কালের একটি রেডিও ওয়েভ বা তরঙ্গ খুঁজে পাওয়ার দাবি বাতিল করে দিয়েছেন। ২০১৮ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনা স্টেট ইউনিভার্সিটি (এএসইউ) এবং এমআইটি নক্ষত্রের থেকে একটি তরঙ্গ শনাক্ত করেছিল। এজেস রেডিও টেলিস্কোপের প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী ‘নেচার’ পত্রিকায় প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে ওই তরঙ্গটি বিশ্বব্রহ্মাণ্ডের সূচনার সময়কালের তরঙ্গ বলে দাবি করা হয়। প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়ার পর জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের মধ্যে তা আলোড়ন সৃষ্টি করে। হাভার্ড-এর জ্যোতির্বিজ্ঞানী অ্যাভি লোব এর প্রশংসা করেন। তবে, বিশ্বের বাকি গবেষকরা এ বিষয়ে আরও তথ্যের অপেক্ষায় ছিলেন।

কেন্দ্রের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি দপ্তরের স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা রমন রিসার্চ ইনস্টিটিউটের গবেষকরা দেশীয় পদ্ধতিতে তৈরি ‘সারস-৩ রেডিও টেলিস্কোপ’ ব্যবহার করে এএসইউ এবং এমআইটি-র গবেষকদের দাবি বাতিল করে দেন। সারস-৩ রেডিও টেলিস্কোপটি যথেষ্ট সংবেদী। এএসইউ এবং এমআইটি-র বিজ্ঞানীরা যে তরঙ্গ শনাক্ত করে, সেটি মহাজগতের সূচয়ার সময়কালের বলে দাবি করেন, সেগুলি যে পদ্ধতির সাহায্যে বিশ্লেষণ করা হয়েছে সেই পদ্ধতিগুলিকে বর্তমানে অপ্রয়োজনীয় বলে বিবেচনা করা হয়। তাই সেই সিদ্ধান্ত গ্রহণযোগ্য নয়। রমন রিসার্চ ইনস্টিটিউটের গবেষকরা মহাজগতের ওপর এই গবেষণার ফলটি ‘নেচার অ্যাস্ট্রোনমি’ পত্রিকায় প্রকাশ করেছেন।  

অধ্যাপক এন উদয়শঙ্করের সঙ্গে অধ্যাপক রবি সুব্রহ্মনিয়ান সারস টেলিস্কোপ ব্যবহার করে এএসইউ এবং এমআইটি-র বিজ্ঞানীদের শনাক্ত করা রেডিও ওয়েভ তরঙ্গটির ওপর পরীক্ষনিরীক্ষা চালিয়েছেন। রমন রিসার্চ ইনস্টিটিউটের সিএমবি গবেষণাগারে অত্যাধুনিক টেলিস্কোপের মাধ্যমে তরঙ্গটির বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, এর রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি ৫০ থেকে ২০০ মেগাহার্টজ। এই তরঙ্গটি এতই ক্ষীণ ছিল, সেটি আমাদের নিজস্ব মহাজগতের রেডিও ওয়েভের তুলনায় অত্যন্ত দুর্বল। রমন রিসার্চ ইনস্টিটিউটের জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা র‍্যাফট-এর ওপর রেডিও টেলিস্কোপ রেখে বিভিন্ন তরঙ্গের বিশ্লেষণের কাজ শুরু করেন। ২০২০ সালে উত্তর কর্ণাটকের ডান্ডিগানাহাল্লি হ্রদে এই টেলিস্কোপটি বসানো হয়। সেখান থেকে মহাজগতের সৃষ্টির সূচনায় প্রাপ্ত সিগন্যালের বিষয়ে  পরীক্ষানিরীক্ষার কাজ বিজ্ঞানীরা শুরু করেন। গবেষণার পর দলের এক সদস্য ডঃ সৌরভ সিং জানান, এএসইউ-এমআইটি-র গবেষকদের দাবি গ্রহণযোগ্য নয়। তাঁরা এক্ষেত্রে আরও কিছু পরীক্ষানিরীক্ষা চালাচ্ছেন।

 

CG/CB/DM/



(Release ID: 1802787) Visitor Counter : 174


Read this release in: English , Hindi