জলশক্তি মন্ত্রক

জল জীবন মিশনের আওতায় ওড়িশাকে ৩,৩২৩ কোটি টাকা বরাদ্দ
বরাদ্দের পরিমাণ চারগুণ বাড়িয়ে ২০২৪-এর মার্চের মধ্যে প্রতিটি বাড়িতে বিশুদ্ধ পানীয় জল পৌঁছে দিতে কেন্দ্র ওড়িশাকে সাহায্য করছে

Posted On: 11 JUL 2021 5:56PM by PIB Kolkata

নতুন দিল্লি, ১১ জুলাই, ২০২১

সাধারণ মানুষের বিশেষ করে মহিলা ও শিশুদের দৈনন্দিন জীবন-যাপনে মানোন্নয়ন ঘটাতে প্রতিটি পরিবারে পাইপ বাহিত বিশুদ্ধ পানীয় জল পৌঁছে দিতে প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর স্বপ্ন বাস্তবায়ণের লক্ষ্যে ২০২১-২২-এ কেন্দ্র জল জীবন মিশনের আওতায় ওড়িশার জন্য আর্থিক সহায়তার পরিমাণ বাড়িয়ে ৩,৩২৩ কোটি ৪২ লক্ষ টাকা করেছে, যা ২০২০-২১-এ সাহায্যের পরিমাণ ৮১২ কোটি ১৫ লক্ষ টাকার তুলনায় চারগুণ বেশি। ওড়িশার জন্য জল জীবন মিশনের আওতায় আর্থিক সাহায্যের পরিমাণ চারগুণ বাড়ানোর বিষয়টি অনুমোদন করে কেন্দ্রীয় জলশক্তি মন্ত্রী শ্রী গজেন্দ্র সিং শেখাওয়াত রাজ্যকে ২০২৪ সালের মার্চের মধ্যে প্রতিটি গ্রামীণ পরিবারে পাইপ বাহিত জল সংযোগ পৌঁছে দিতে সবরকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন।
২০১৯-এ জল জীবন মিশন শুরুর হওয়ার সময় দেশে ১৮ কোটি ৯৩ লক্ষ গ্রামীণ পরিবারের মধ্যে কেবল ৩ কোটি ২৩ লক্ষ (১৭ শতাংশ) পরিবারে পাইপ বাহিত জল সংযোগের সুবিধা ছিল। কোভিড-১৯ মহামারী সত্বেও গত ২২ মাসে জল জীবন মিশনের আওতায় ৪ কোটি ৫০ লক্ষ গ্রামীণ পরিবারে পাইপ বাহিত জল সংযোগ পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হয়েছে। গ্রামীণ পরিবারগুলিতে পাইপ বাহিত জল সংযোগের পরিধি ২৩.৫ শতাংশ বৃদ্ধি পাওয়ায় বর্তমানে সারা দেশে ৭ কোটি ৬৯ লক্ষ (৪০.৬ শতাংশ) পরিবারে এই সুবিধা পৌঁছে গেছে। ইতিমধ্যেই গোয়া, তেলেঙ্গানা, আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ এবং পণ্ডিচেরিতে ১০০ শতাংশ গ্রামীণ পরিবারে পাইপবাহিত জল সংযোগ সুনিশ্চিত হয়েছে।
২০১৯-এর ১৫ আগস্ট জল জীবন মিশনের সূচনার সময় ওড়িশায় কেবল ৩ লক্ষ ১০ হাজার গ্রামীণ পরিবারে পাইপ বাহিত জল সংযোগের সুবিধা ছিল। তখন থেকে এখনও পর্যন্ত রাজ্যে ২২ লক্ষ ৮৪ হাজার পরিবারে এই সুবিধা পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। এর ফলে, ওড়িশায় ৮৫ লক্ষ ৬৬ হাজার গ্রামীণ পরিবারের মধ্যে ২৫ লক্ষ ৯৫ হাজার পরিবারে পাইপ বাহিত জল সংযোগের সুবিধা পৌঁছে গেছে। ২০২১-২২-এ ওড়িশা ২১ লক্ষ ৩১ হাজার পরিবারে পাইপ বাহিত জল সংযোগ পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্য স্থির করেছিল। একই ভাবে ২০২২-২৩-এ ২২ লক্ষ ৫৩ হাজার পরিবারে এবং ২০২৩-২৪-এ ১৮ লক্ষ ৮৭ হাজার পরিবারে পাইপ বাহিত জল সংযোগের সুবিধা পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্য স্থির হয়।
ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী লেখা চিঠিতে জলশক্তি মন্ত্রী শ্রী শেখাওয়াত প্রতিটি গ্রামে পাইপ বাহিত জল সংযোগ পৌঁছে দেওয়ার কাজ দ্রুত শেষ করার ওপর গুরুত্ব দেন, যাতে ২০২৪-এর মার্চ মাসের মধ্যে প্রতিটি গ্রামীণ পরিবারে পাইপ বাহিত জল সংযোগের সুবিধা দেওয়া সম্ভব হয়।

CG/BD/AS



(Release ID: 1734636) Visitor Counter : 94


Read this release in: English