সামাজিকন্যায়ওক্ষমতায়নমন্ত্রক

মাদক এবং চোরাচালান প্রতিরোধ সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষে নেশা মুক্ত ভারত অভিযানের ওয়েবসাইটের সূচনা করেছেন শ্রী থাওয়ারচাঁদ গেহলত
মাদকের কুপ্রভাব যে কোন মূল্যে দূর করতে ভারত অঙ্গিকারবদ্ধ : শ্রী গেহলত

Posted On: 26 JUN 2021 10:17PM by PIB Kolkata

নতুন দিল্লি, ২৬ জুন, ২০২১

মাদক ও চোরাচালান প্রতিরোধ সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষে কেন্দ্রীয় সামাজিক ন্যায়বিচার ও ক্ষমতায়ণ মন্ত্রী শ্রী থাওয়ারচাঁদ গেহলত আজ নেশা মুক্ত ভারত অভিযানের ওয়েবসাইটের সূচনা করেছেন। এই উপলক্ষে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী শ্রী কৃষাণ পাল গুর্জর, শ্রী রামদাস আথওয়ালে এবং শ্রী রতনলাল কাটারিয়া উপস্থিত ছিলেন। মাদকের প্রভাবমুক্ত এক বিশ্ব গড়ে তোলার লক্ষ্যে সমস্ত দেশের মধ্যে কর্ম পরিকল্পনা ও সহযোগিতাকে আরও নিবিড় করে তুলতে এই দিনটি উদযাপন করা হয়। ভারতে মাদকের ব্যবহার প্রতিরোধে বিভিন্ন কর্মসূচি রূপায়ণের লক্ষ্যে সামাজিক ন্যায়বিচার ও ক্ষমতায়ণ মন্ত্রক নোডাল মন্ত্রক হিসেবে কাজ করে থাকে।
এবছর মাদকের ব্যবহার ও চোরাচালান প্রতিরোধ সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক দিবস উদযাপন উপলক্ষে মন্ত্রক দেশ ব্যাপী ৬ দিনের এক নেশা মুক্ত ভারত অভিযানের আয়োজন করেছিল। আজ এই অভিযান সম্পর্কিত ওয়েবসাইট উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে এই কর্মসূচির সমাপ্তি ঘটলো। অনুষ্ঠানে শ্রী গেহলত বলেন, 'যে কোন ধরণের মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের উদ্দেশ্যগুলিকে আরও লক্ষ্যভেদী করে তুলতে একযোগে এগিয়ে আসতে হবে। মাদকের কুপ্রভাবের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বিশ্বের কাছে এই বার্তা পৌঁছে দিতে হবে যে, ভারতে কোন প্রচেষ্টাতে ঘাটতে নেই।' তিনি আরও বলেন, মাদকের কুপ্রভাব সমূলে উৎখাত করতে ভারত অঙ্গিকারবদ্ধ।
মন্ত্রকের পক্ষ থেকে পরিচালিত জাতীয় স্তরের এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, দেশে মাদক ব্যবহারকারী ব্যক্তির সংখ্যা ৬ কোটি বেশি। এমনকি, এদের মধ্যে অধিকাংশই ১০ থেকে ১৭ বছর বয়সী বলে শ্রী গেহলত জানান। দেশে মাদকের চাহিদা নিয়ন্ত্রণে সামাজিক ন্যায়বিচার ও ক্ষমতায়ণ মন্ত্রক নোডাল মন্ত্রক হিসেবে কাজ করছে বলে উল্লেখ করে শ্রী গেহলত জানান, মাদকের অপব্যবহার এবং কুপ্রভাব সম্পর্কিত বিষয়গুলির নিরসনে একাধিক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। মাদকের কুপ্রভাব সম্পর্কে সাধারণ মানুষকে সচেতন করে তুলতে সারা দেশে ৫০০টির বেশি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন নিরন্তর কাজ করে চলেছে। মন্ত্রকের এনএপিডিডিআর প্রকল্পের আওতায় এধরণের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলিকে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়। মাদক মুক্ত ভারত অভিযান রূপায়ণের সঙ্গে এই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলি সক্রিয় ভাবে যুক্ত থেকেছে। এমনকি, মাদকের কুপ্রভাব সম্পর্কে সাধারণ মানুষকে সচেতন করে তুলতে সংগঠনগুলির স্বেচ্ছাসেবীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে, গ্রাম থেকে গ্রামে ও দূরবর্তী অঞ্চলগুলিতেও প্রচারাভিযান চালিয়েছেন। কোভিড-১৯ জনিত উদ্ভূত পরিস্থিতি সত্বেও নেশা মুক্ত ভারত অভিযানের কাজকর্ম পুরোদমে রূপায়িত হয়েছে। শ্রী গেহলত সাধারণ মানুষকে নেশা মুক্ত ভারত অভিযানে সামিল হওয়ার আহ্বান জানান। এসম্পর্কে তিনি বলেন, সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণের ফলেই সমাজ থেকে মাদক ভীতি দূর করা যাবে।
অনুষ্ঠানে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী শ্রী আথওয়ালে বলেন, মাদক অপব্যবহারের দরুণ বহু জীবন নষ্ট হয়েছে। তাই এসম্পর্কে সচেতনতা গড়ে তোলা জরুরী। 'আমাদের মাদক মুক্ত ভারত গড়ে তোলার লক্ষ্য অর্জন করতে হবে, তাই সামাজিক ন্যায়বিচার ও ক্ষমতায়ণ মন্ত্রক এব্যাপারে সর্বদাই সজাগ রয়েছে।' সমগ্র বিশ্ব মাদকের কুপ্রভাবের সম্মুখীন হয়েছে এবং মাদকাসক্তি ব্যক্তি বিশেষের পাশাপাশি পরিবার এবং সর্বোপরি সমাজের ওপর কুপ্রভাব ফেলছে। একারণেই মাদকের কুপ্রভাব সমগ্র বিশ্বের কাছেই গভীর উদ্বেগের কারণ হয়ে উঠেছে বলে অভিমত প্রকাশ করেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী শ্রী কাটারিয়া। সামাজিক ন্যায়বিচার ও ক্ষমতায়ণ মন্ত্রক মাদক-চাহিদা নিয়ন্ত্রণে অঙ্গিকারবদ্ধ বলে উল্লেখ করে শ্রী কাটারিয়া বলেন, মাদকাসক্তির কুপ্রভাব সম্পর্কে সচেতন করে তুলতে সরকার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলিকে আর্থিক সাহায্য দিয়ে আসছে।
এই উপলক্ষে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী শ্রী গুর্জর বলেন, 'আমরা এমন এক বিশ্বে বাস করছি যেখানে মাদকের লেনদেন গুরুতর বিপদের আকার ধারণ করছে। মাদক কেবল একজন ব্যক্তির জীবন ধ্বংস করে দেয় না, সেই সঙ্গে পরিবার ও সামাজেরও অপূরণীয় ক্ষতি করে। তাই মাদকাসক্তি সমাজ ও দেশের কাছে উদ্বেগের কারণ হয়ে উঠেছে।'
অনুষ্ঠানের প্রারম্ভে সামাজিক ন্যায়বিচার দপ্তরের সচিব শ্রী আর সুভ্রমণিয়ম বলেন, 'আমরা গত বছর নেশা মুক্ত ভারত অভিযানের সূচনা করেছি। এই অল্প সময়ের মধ্যেই অনেক কাজ হয়েছে। কর্মসূচির আওতায় ২৭২টি অত্যাধিক মাদক ঝুঁকিবহুল জেলাকে চিহ্নিত করা হয়েছে। এই জেলাগুলিতে প্রায় ৮ হাজার স্বেচ্ছাসেবক বাড়ি বাড়ি গিয়ে মাদকের অপব্যবহার ও কুপ্রভাব সম্পর্কে সচেতনতা প্রচার করেছেন। আমরা আশাকরি স্বাধীনতার ৭৫ তম বার্ষিকী উদযাপনের অঙ্গ হিসেবে শীঘ্রই অন্তত ১০০টি জেলাকে মাদক মুক্ত হিসেবে ঘোষণা করতে পারবো।'
আজ যে নেশামুক্ত ভারত অভিযান ওয়েবসাইটের সূচনা হয়েছে তাতে এই অভিযান সম্পর্কে বিস্তারিত বিবরণ রয়েছে। এছাড়াও অভিযান চলাকালীন বিভিন্ন কর্মকাণ্ড, ছবি ও ভিডিও গ্যালারি রয়েছে। শ্রী গেহলত এই উপলক্ষে নেশা মুক্ত ভারত মাসিক পত্রিকার বিশেষ সংস্করণ প্রকাশ করেন। একটি স্বল্প দৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্রও জনসমক্ষে প্রকাশ করা হয়। এই অভিযানের সঙ্গে যুক্ত বিশেষ কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবীর সঙ্গে শ্রী গেহলতের মতবিনিময়ের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়।
উল্লেখ করা যেতে পারে, মাদকের অপব্যবহার মাত্রাতিরিক্ত এমন ২৭২টি জেলায় গতবছর ১৫ আগস্ট নেশা মুক্ত ভারত অভিযানের সূচনা হয়।

CG/BD/AS



(Release ID: 1730604) Visitor Counter : 296


Read this release in: English