স্বাস্থ্যওপরিবারকল্যাণমন্ত্রক

বিভিন্ন স্বাস্থ্য প্রকল্পে অর্থ বরাদ্দ বৃদ্ধি

Posted On: 09 MAR 2021 1:25PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লী, ৯ মার্চ, ২০২১


    ২০২০-২১ অর্থবর্ষের তুলনায় ২০২১-২২ অর্থবর্ষে স্বাস্থ্য প্রকল্পে বাজেট বরাদ্দ ৭.৯৫ শতাংশ বৃদ্ধি করা হয়েছে। 


    কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তরের নির্ধারিত     কেন্দ্রীয় প্রকল্প ক্ষেত্রের আওতায় ২০২১-২২ অর্থবর্ষে প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্য সুরক্ষা যোজনায় ৭ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। পরিবার কল্যাণ প্রকল্পের আওতায় ২০২১-২২ অর্থবর্ষে গণশিক্ষা-আইইসি (তথ্য, শিক্ষা এবং যোগাযোগ) ক্ষেত্রে ৬০ কোটি, গণ গবেষণা কেন্দ্রগুলির জন্য ২৯.০৫ কোটি, পরিচালন তথ্য ব্যবস্থাপনা ক্ষেত্রে ৩৫.২২ কোটি, গর্ভনিরোধক সামাজিক বিপণন ক্ষেত্রে ৭০ কোটি, গর্ভনিরোধক সামগ্রী বিনামূল্যে বিতরণ প্রক্রিয়ার জন্য দেড়শো কোটি, ন্যাশনাল কমিশন অন পপুলেশন ক্ষেত্রের জন্য ০.০১ কোটি, অন্যান্য মন্ত্রকের পরিবার কল্যাণ কর্মসূচি প্রকল্পে ০.০১ কোটি, সরকারি-বেসরকারী উদ্যোগে পরিচালিত এনজিও-গুলির জন্য ০.০১ কোটি, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সহযোগিতায় পরিচালিত জাতীয় পোলিও নজরদারি প্রকল্পে ৪২.৮৫ কোটি, জাতীয় এইডস্ ও এসটিডি নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচি ক্ষেত্রে ২ হাজার ৯০০ কোটি সহ অন্যান্য প্রকল্প ও কর্মসূচি ক্ষেত্রে মোট ১০,৫৩৬.৬৩ কোটি টাকার অর্থ বরাদ্দ করা হয়েছে।


    কেন্দ্রীয় সরকার পোষিত  প্রকল্পগুলির আওতায় ২০২১-২২ অর্থবর্ষে জাতীয় গ্রামীণ স্বাস্থ্য মিশনে ৩০ হাজার ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। জাতীয় শহর স্বাস্থ্য মিশন ক্ষেত্রে ১ হাজার কোটি, ওষুধ পরিচালন ব্যবস্থাপনাকে শক্তিশালী করে তোলার জন্য ১৭৫ কোটি এবং স্বাস্থ্য ক্ষেত্রের সঙ্গে যুক্ত অন্যান্য কর্মসূচির জন্য ৫০০.৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। এছাড়াও স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা শিক্ষার জন্য মানব সম্পদ ক্ষেত্রে ৪ হাজার ৮০০ কোটি, জাতীয় স্বাস্থ্য সুরক্ষা প্রকল্পে ১ কোটি ও আয়ুষ্মান ভারত- প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনায় ৬ হাজার ৪০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। চলতি বছরের পয়লা মার্চ পর্যন্ত কোভিড-১৯ জরুরি অবস্থা মোকাবিলা এবং স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা প্রস্তুতি প্যাকেজে ৬৩,৪৭.৫৫ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।২০২০-২১ অর্থবর্ষে স্বাস্থ্যকর্মী এবং প্রথম সারির কর্মীদের জন্য কোভিড-১৯ টিকাকরণ প্রক্রিয়ায় ৩৬০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।


    রাজ্যসভায় আজ এক প্রশ্নের লিখিত উত্তরে একথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী শ্রী অশ্বিনী কুমার চৌবে।

***

 


CG/SS/NS



(Release ID: 1703579) Visitor Counter : 56


Read this release in: English , Urdu