আয়ুষ

করোনা ভাইরাস সংক্রমনের প্রতিরোধে পরামর্শ

Posted On: 29 JAN 2020 5:36PM by PIB Kolkata

 নয়াদিল্লি, ২৯ জানুয়ারি, ২০২০

 

 

    রহস্যময় নতুন করোনা ভাইরাসের প্রকোপ দ্রুত ছড়াচ্ছে। সারা বিশ্বে এই ভাইরাসের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। চিরায়ত ভারতীয় চিকিৎসা ব্যবস্হা- আয়ুর্বেদ, হোমিওপ্যাথি এবং ইউনানির মাধ্যমে এই রোগ প্রতিরোধের বিষয়ে কেন্দ্রের আয়ুষ মন্ত্রকের গবেষণা পর্ষদ কিছু পরামর্শ জারি করেছে।

    আয়ুর্বেদ চিকিৎসা পদ্ধতি অনুসারে রোগ প্রতিরোধের গৃহীত ব্যবস্হাগুলি হল :

·        ব্যক্তিগত স্বাস্হ্যবিধি বজায় রাখা

·        সাবান এবং জল দিয়ে ২০ সেকেন্ড ধরে হাত ধোবেন

·        মুস্তা, পারপাত, উশির, চন্দন, উদিচ্চ এবং নগরের মিশ্রণের ১০ গ্রাম পাউডারকে ১ লিটার জলে ফোটাতে থাকুন। যখন মিশ্রণের পরিমাণ অর্ধেক হবে তখন এটিকে সংগ্রহ করে তেষ্টা পেলে পান করুন।

·        হাত না ধুয়ে আপনার চোখ, নাক, মুখ ছোঁবেন না।

·        অসুস্হ লোকেদের থেকে দূরত্ব বজায় রাখুন।

·        যখন আপনি অসুস্হ থাকবেন তখন ঘরেই থাকুন।

·        হাঁচি, কাশির সময় আপনার হাত ধোবেন এবং মুখ কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখুন।

·        যে জিনিসগুলিকে ঘনঘন স্পর্শ করেন পরিষ্কার ও জীবানুমুক্ত রাখুন।

·        কোথাও যাওয়ার সময় এন-৯৫ মাস্ক ব্যবহারের চেষ্টা করুন।

·        যদি সন্দেহ করেন যে আপনি করোনা ভাইরাস আক্রান্ত তাহলে মুখোশ পরুন এবং নিকটবর্তী হাসপাতালের সঙ্গে তৎক্ষণাত যোগাযোগ করুন

·        আর্যুবেদিক চিকিৎসাশাস্ত্র অনুসারে স্বাস্হ্যকর খাবার এবং জীবনশৈলি বজায় রাখার মাধ্যমে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করুন।

·        দিনে দু-বার গরম জলের সঙ্গে অগস্ত হরিতকি খান।

·        প্রতিদিন দুটি করে ৫০০ মিলিগ্রামের সামসামানি বুটিক খান।

·        এক লিটার জলে পিতটি, মরিচ ও সুনথির ৫ গ্রাম পাউডারের সঙ্গে ৩-৫টি তুলসি পাতা দিয়ে জল ফোটান। জলের পরিমাণ অর্ধেক হয়ে গেলে তারপর প্রয়োজন মতো তা সেবন করুন।

·        প্রতিদিন সকালে নাকের ফুটোয় দু-ফোঁটা করে অণু তেল দেবেন।

 

          নিবন্ধীকৃত আর্য়ুবেদ চিকিৎসকের পরামর্শক্রমে  প্রয়োজনীয় ব্যবস্হা গ্রহণ করতে হবে।

    আয়ুষ মন্ত্রকের সেন্ট্রাল কাউন্সিল ফর রিসার্চ ইন হোমিপ্যাথি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য হোমিওপ্যাথ ওষুধের প্রয়োগ সম্পর্কে ২৮শে জানুয়ারি বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টা পর্ষদের ৬৪তম বৈঠকে আলোচনা করেছে। এই ভাইরাস থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য আর্সেনিক অ্যালবাম ৩০ খালি পেটে এক ফোঁটা করে তিন দিন খেতে হবে।

    এই ভাইরাসের সংক্রমনের থেকে বাঁচতে ইউনানি পদ্ধতিতে যেসব ওষুধ ব্যবহার করা যায় সেগুলি হল ১. সরবত উন্নাম দিনে ২ বার করে ১০-২০ মিলিলিটার। ২. তিরিয়াক আরবা ৩-৫ গ্রাম দিনে ২ বার করে। ৩. তিরিয়াক নাজলা ৫ গ্রাম করে দিনে ২ বার। ৪. খামিরা মারওয়ারিদ প্রতিদিন ৩-৫ গ্রাম তালু এবং বুকে রোগান বাবোনা/রোগান মম/কাফোরি মলম মালিস করতে হবে। নাকে হালকাভাবে রোগান বানাফসা মালিস করতে হবে। প্রতিদিন চারবার ৪-৮ ফোঁটা আজিদ আরোক জলে মিশিয়ে খেতে হবে। জ্বর হলে ঈষদুষ্ণ জলের সঙ্গে দিনে ২ বার হাব-এ-ইকসিরবুখার দুটি ট্যাবলেট খেতে হবে। দিনে ২ বার ১০০ মিলিলিটার ঈষদুষ্ণ জলে ১০ মিলিলিটার সরবত নাজলা মিশিয়ে খেতে হবে। দিনে ২ বার কুর্স-এ-সুয়েল ট্যাবলেট ২টি করে খেতে হবে।

    ইউনানি চিকিৎসকের পরামর্শক্রম সহজপাচ্য হালকা খাবার খেতে হবে।

 

 

CG/CB /NS

  



(Release ID: 1601018) Visitor Counter : 33


Read this release in: English