জলশক্তি মন্ত্রক

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী স্বচ্ছতা হি সেবা (এসএইচএস) ২০১৯এর সূচনা করেছেন

Posted On: 12 SEP 2019 3:49PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

 

 

 

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর)মথুরায় স্বচ্ছতা নিয়ে দেশজুড়ে প্রচার এবং সচেতনতা প্রসারের উদ্দেশ্যে স্বচ্ছতা হি সেবা(এসএইচএস) ২০১৯এর সূচনা করেছেন। এবছর এই স্বচ্ছতা হি সেবা অভিযানে প্লাস্টিক নিয়ে সচেতনতা এবং ব্যবস্হাপনার ওপর বিশেষ নজর দেওয়া হয়েছে। ১১ই সেপ্টেম্বর শুরু হয়েছে এই অভিযান। চলবে আগামী দোশরা অক্টোবর পর্যন্ত। মহাত্মা গান্ধীর সার্ধশত জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে স্বচ্ছ ভারত গঠনের অঙ্গ হিসেবে দেশকে উন্মুক্তস্হানে শৌচকর্ম থেকে মুক্ত করার উদ্দেশ্যে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের পশুপালন, ডেয়ারী, পানীয় জল দপ্তর এবং উত্তরপ্রদেশ সরকারের যৌথ উদ্যোগে এই স্বচ্ছতা হি সেবা অভিযানের আয়োজন করা হয়েছে।

 

প্রধানমন্ত্রী এদিন পশুধন আরোগ্য বিজ্ঞান মেলা পরিদর্শন করেন। উত্তরপ্রদেশে যে মহিলাগোষ্ঠী বর্জ্য থেকে প্লাস্টিক পৃথকীকরণের কাজ করে তাদের সঙ্গেও প্রধানমন্ত্রী সাক্ষাৎ করেন এবং স্বয়ং তিনি এই কাজে অংশ নেন।

 

ভাষণে প্রধানমন্ত্রী দেশের নাগরিকদের তাদের বাড়ি, অফিস এবং কর্মক্ষেত্র থেকে একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিকমুক্ত করার আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে উপস্হিত ছিলেন প্রায় ২০ হাজার কৃষক, গ্রাম প্রধান এবং মহিলাগোষ্ঠীর সদস্যরা। তাঁদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, এ ধরণের প্লাস্টিক পরিবেশ, পশুদের স্বাস্হ্য এবং মানব জীবনের পক্ষে বিপজ্জনক। তাই বাজার করার সময় কাপড়, চটের ব্যাগ ব্যবহার করার আর্জি জানান তিনি। এমনকি অফিসে পানীয় জলের ক্ষেত্রে কাঁচের অথবা ধাতব গ্লাস ব্যবহার করার আহ্বান জানান। এই স্বচ্ছতা হি সেবা অভিযানে সাধারণ মানুষকে আশপাশের এলাকা থেকে সমস্ত প্লাস্টিক সংগ্রহ করে স্হানীয় প্রশাসনকে সঙ্গে নিয়ে নিরাপদে তা নষ্ট করে দেওয়ার কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

 

অনুষ্ঠানে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শ্রী যোগী আদিত্যনাথ স্বচ্ছ ভারত মিশনের ইতিবাচক প্রভাবের কথা উল্লেখ করে বলেন, এরফলে উত্তরপ্রদেশের পূর্বাঞ্চলে এনসেফেলাইটিসের মতো রোগ প্রতিরোধ করা সম্ভব হয়েছে। কেন্দ্রীয় জলশক্তি মন্ত্রী শ্রী গজেন্দ্র সিং শেখাওয়াত বলেন, সমগ্র বিশ্ব এখন অপেক্ষা করে রয়েছে কবে ভারত উন্মুক্ত শৌচকর্ম থেকে মুক্ত দেশ হয়ে উঠবে। তিনি বলেন, স্বচ্ছতা হি সেবা ২০১৯ প্রচারাভিযানে প্লাস্টিক বর্জনের ওপর বিশেষ জোর দেওয়া হচ্ছে। তাই পরিবেশকে সুরক্ষিত করতে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে এক নতুন জন-আন্দোলন গড়ে তোলার ডাক দেওয়া হয়েছে।

 

এ বছর দোশরা অক্টোবর দেশ ব্যাপি বর্জ্য থেকে প্লাস্টিক সংগ্রহ এবং পৃথকীকরণের জন্য শ্রমদান করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। তেশরা অক্টোবর থেকে ২৭ অক্টোবরের মধ্যে এই সংগ্রহিত প্লাস্টিক নিরাপদে নষ্ট এবং পুনর্নবীকরণের কাজ করা হবে। স্বচ্ছতা হি সেবা ২০১৯কে সফল করে তোলার জন্য প্রধানমন্ত্রী দেশের সমস্ত গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানকে চিঠিও লিখেছেন।

 

 

 

CG/SS/NS



(Release ID: 1584851) Visitor Counter : 63


Read this release in: English