নির্বাচনকমিশন

ভোটারদের সহযোগিতার জন্য নির্বাচন কমিশন হেল্পলাইন নম্বর এবং মোবাইল অ্যাপ চালু করেছে

Posted On: 19 MAR 2019 6:41PM by PIB Kolkata

কলকাতা, ১৯ মার্চ, ২০১৯

 

সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি এখন জোরকদমে চলছে। ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে তাঁদের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতে পারেন, সেজন্য ভারতের নির্বাচন কমিশন ভোটদাতাদের সুবিধার্থে একটি হেল্পলাইন ও একটি মোবাইল অ্যাপ চালু করেছে। হেল্পলাইন নম্বরটি হ’ল একটি টোল ফ্রি নম্বর  ১৯৫০। ভোটার তালিকায় নাম থাকা, সচিত্র পরিচয়পত্র, ভোট দেওয়ার তারিখ, সংসদীয় কেন্দ্রের নাম, বুথ, যে কেন্দ্রে ভোট দেবেন, সেই বুথের আধিকারিকের নাম, ভিন্নভাবে সক্ষম ভোটারদের প্রয়োজনীয় নিবন্ধীকরণ, অনলাইনে নাম নথিভুক্তকরণ, ভোটার তালিকায় সংশোধন, অভিযোগ জানানো সহ যে কোনও  সমস্যার সমাধান এখানে ফোন করে জানানো যাবে। এছাড়া, একই উদ্দেশ্যে ‘ভোটার হেল্পলাইন’ নামে একটি মোবাইল অ্যাপ-ও চালু হয়েছে। ভোটদাতারা এই মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করেও ১৯৫০’র মাধ্যমে তাঁদের যাবতীয় প্রশ্নের জবাব পাবেন। এছাড়াও, www.nvsp.in – এই পোর্টাল থেকেও এইসব প্রশ্নের উত্তর মিলবে। বর্তমানে এই নির্বাচনী মরশুমে ছুটির দিন ও রবিবার সহ সবসময়েই এই হেল্পলাইন চালু থাকবে। আরও বেশি করে ভোটারদের কাছে পৌঁছনোর লক্ষ্যে সর্বভারতীয় এই হেল্পলাইন ১৯৫০ সব রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকদের ওয়েবসাইটেও দেওয়া আছে।

সর্বশেষ তথ্য অথবা অভিযোগ জানানোর জন্য কোন নাগরিক ১৯৫০ নম্বরে ডায়াল করলে , কলটি প্রথমে জেলা সম্পর্ক কেন্দ্রে পৌছাবে। সেখান থেকে তা যাবে কল সেন্টারের এজেন্টের কাছে। কলারকে সংশ্লিষ্ট জেলার ভাষায় স্বাগত জানান হবে। দেশের যে কোন প্রান্তে ভোটাররা যে জেলার সঙ্গে যোগাযোগ করতে চাইবেন, সেই জেলার এস টি ডি কোডটি আগে ডায়াল করে তারপর ১৯৫০ ডায়াল করবেন। এফ এ কিউ এবং এনভিএসপি আর এরোনেটের মতো অভিন্ন ব্যবহারিক প্রক্রিয়ায় সব জেলা সম্পর্ক কেন্দ্রগুলিতে এই কাজ হবে। মুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের দপ্তরে থাকবে রাজ্য-ভিত্তিক সম্পর্ক কেন্দ্র। যার মূল কাজ হবে ১৯৫০ এ আসা ফোন কলগুলির ওপর নজরদারি চালান। নির্বাচনের সময় মুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের ভূমিকা হবে কন্ট্রোল রুমের। ১৯৫০ অথবা ওয়েবসাইটে যেসব অভিযোগগুলি আসবে জেলা-ভিত্তিক কেন্দ্রগুলি সেগুলি মীমাংসার বিষয়ে কাজ করবে। অভিযোগকারীরা তাঁদের অভিযোগগুলি নিষ্পত্তির জন্য কি কি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, সে বিষয়েও জানতে পারবেন।

নাগরিকরা তাঁদের চাহিদা অনুযায়ী নির্বাচনী পরিষেবাগুলি সর্বক্ষণ এই ব্যবস্থা থেকে পাবেন। এটি নির্বাচনী প্রক্রিয়া এবং নাগরিকদের মধ্যে সেতুবন্ধের কাজ করবে। প্রসঙ্গত, ২০১১ সালেও এই হেল্পলাইন নম্বরটি চালু করা হয়েছিল। সেই সময়ে এর নম্বর ছিল ১৯৬৫। নির্বাচন কমিশন ১৯৫০ সালের ২৫শে জানুয়ারি প্রতিষ্ঠা হয়েছিল। তার সঙ্গে সাযুজ্য রেখে নম্বরটি পরিবর্তন করা হয়।

 

 

CG/CB/SB



(Release ID: 1569136) Visitor Counter : 67

Read this release in: English